ক্যাটেগরিঃ ফিচার পোস্ট আর্কাইভ, স্বাধিকার চেতনা

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের প্রতিটা ইট, বালি ও সুরকিতে আমার সম্পৃক্ততা চাই। কোনোভাবে। প্রতিটা বাঙালির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জনের নথি-নকশাকে উত্তরসূরিদের জন্য তুলে ধরতে প্রতিটা বাঙালির অবদান থাকা উচিত। শ্রমে, অর্থে, পোস্টে, চেষ্টায়। আমার একশ টাকায় মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর তৈরী হবে না, কিন্তু চেষ্টা করতে পারি আমরা অন্যকেও একশ টাকা দিতে উদ্বুদ্ধ করতে। যে কোন ক্ষুদ্র অঙ্ক দিয়ে আমরা সম্পৃক্ত হতে পারি।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের জন্য অর্থ সংগ্রহ কিভাবে করা যায়, কে কোন সংযোগকে কাজে লাগাতে পারি – সেসব নিয়ে আমরা একদিন বসতে পারি। চলুন বসে পরি পাবলিক লাইব্রেরীর সামনে – আসছে শুক্রবার, ৮ তারিখ – বিকাল ৫ টায়!

একটা প্রস্তাব দিলাম। ভেবে দেখবেন আশা করি।

আপডেট:

ব্লগার নাহুয়াল মিথ এর প্রস্তাবনানুসারে ব্লগারদের সভাস্থল শহীদ মিনার চত্বর। এটি স্থানটি আমাদের চেতনাকে উদ্বুদ্ধ করবে নিশ্চিত।

———————————————————————————————————
ফিচার ছবি: ব্লগার নজরুল ইসলাম -এর ’মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের প্রচারপত্র থেকে’ পোস্ট থেকে সংগৃহিত

————————————————————————————————————————–
মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধূরী‘র পোস্ট- সবার সহযোগিতায় নির্মিত হবে নতুন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর- আপনিও এগিয়ে আসুন।