ক্যাটেগরিঃ স্যাটায়ার

হরতালের জন্য ফি নির্ধারণ করে দিতে পারে সরকার। উক্ত ফি অগ্রিম পরিশোধ সাপেক্ষেই কোনও রাজনৈতিক দল, ব্যবসায়িক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক দল অথবা পেশাজীবী দলকে হরতাল করার অনুমতি দেবে সরকার। ফি এমন হতে পারে:

১. ফুল ডে হরতালের জন্য সরকারকে অগ্রিম পরিশোধ করতে হবে – ১ হাজার কোটি টাকা
২. হাফ ডের জন্য ডিসকাউন্ট – ৯শ কোটি টাকা। (হাফ হবে না – কারণ হাফ ডে’তে ফুল ডে’র মতই লস হয়)
৩. পরীক্ষার দিন হরতাল দিলে – ২ হাজার কোটি টাকা
৪. বর্ষায় হরতালের রেটে একটু ডিসকাউন্ট থাকবে – ৭ শ কোটি টাকা
৫. ডিসেম্বরের হরতালের রেট সবচেয়ে বেশী – পার হরতাল ৫ হাজার কোটি টাকা
৬. শুক্রবারের হরতালে থাকবে বিশাল মূল্যহ্রাস – মাত্র ২ শ কোটি টাকা।

এ ছাড়া ৪৮ ঘণ্টা, ৭২ ঘণ্টার হরতাল আলোচনা সাপেক্ষে বিক্রি করা হতে পারে। তবে রাজধানী ও জেলা শহরের ক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন রেট প্রযোজ্য। অঞ্চল ভিত্তিক হরতালের সুযোগ থাকবে যার জন্য বেশী খরচ করতে হবে না। এছাড়া ট্রান্সপোর্ট হরতাল, গার্মেন্টস হরতাল, নৌ হরতাল, সিএনজি হরতাল সহ নানাবিধ হরতালের জন্য নানারকম রেট নির্ধারিত হবে। চিকিৎসক হরতাল, আইনজীবী হরতাল, শিক্ষক হরতাল সহ থাকবে নানাবিধ সুবিধা। সরকারী কর্মকর্তাদের হরতালের জন্যও রেট থাকবে।

হরতালের রেটসমূহ নির্ধারণ করে অনতিবিলম্বে গেজেট আকারে প্রকাশ করার জন্য সরকারের কাছে কূল-হীন অনুরোধ জানাই।