ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

images

আজকে ২৭ শে জানুয়ারি দুপুর ১২.৩০ থেকে ফেসবুক বন্ধ পাচ্ছি। কেনো বন্ধ? হতে পারে ফেসবুকের টেকনিক্যাল প্রবলেম। হতে পারে আমাদের ইন্টারনেটের প্রবলেম। হতে পারে সরকার বন্ধ করে দিয়েছে। হোয়াটেভার! কিন্তু ফেসবুক বন্ধ হওয়ায় যেনো সকল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। একসাথে হারিয়ে গেছে শ শ মানুষ যাদের কে দেখা যায় চোখের সামনে প্রতিনিয়ত। যাদের কথা শোনা যায়, অপনিয়ন দেখা যায়।

ফেসবুকে আমরা কী করি যা অন্য কোথাও করা যায় না? ফেসবুকে সবচেয়ে বেশী যেটা করে মানুষের সাথে সম্পর্ক তৈরী করি। মনে হয় যেনো মানুষের মধ্যে বসবাস। চোখের সামনে তাকে, অমুককে তমুককে দেখা যায়। একটা জীবন্ত-যোগাযোগ-ব্যবস্থা।

সেইসাথে মানুষ মারফত নানা তথ্য, জ্ঞান, হাসি-কান্না-আনন্দও। এসবই তো জীবনের অংশ। আছে প্রতিবাদ, আন্দোলন। আছে তাই যা জীবনে সম্পূর্ণ হয় না। ফেসবুক ছাড়া জীবন কল্পনা করা কেবল দু:সাধ্য না, বোরিংও।

জানি না ফেসবুক কী কারণে বন্ধ হয়েছে এবং কতক্ষণ থাকবে – কিন্তু বন্ধ হবার পরে ফেসবুকের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করতে পারছি।

যদি ওপেন না হয় আর, মনে হয় না কোনো অসুবিধা হবে। আমাদের নুতন কিছু অভ্যস্ত হতে কোনো সমস্যা হবার কথা না। রাগ-ক্ষোভ-বিক্ষোভের পরে আমরা ঠিকই নতুন কোনো এক পদ্ধতিগত বিনিময়ে রপ্ত হয়ে যাবো।

ফেসবুক হবে ইতিহাস। হওয়াই উচিত। নতুন কিছু আসুক। শুধু বুকের মধ্যে সীমাবদ্ধ না হয়ে সেটা আস্ত একটা লাইব্রেরী হোক।