ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

কলাম্বিয়া বিশ্বাবিদ্যালয়ের আর্থ ইনস্টিটিউট তো এমনই জানালো। তাদের ওয়েব সাইটে প্রকাশিত একটা ডকুমেন্টারি A new documentary from the Earth Institute এ সংক্রান্ত গবেষণা তুলে ধরেছে। গবেষণাটিতে বলা হয় যে বাংলাদেশে রয়েছে সমুদ্র সংলগ্ন বিশ্বের সর্ববৃহৎ নদী অববাহিকা যা সুনামিতে নদীর তীরকে ভাসিয়ে নিতে পারে। এছাড়া এখানে তীব্রভাবে বেড়ে চলছে বড় বড় ব্রিজ এবং উচু উচু ভবন যা ঝুঁকির পরিমাণ ক্রমশই বৃদ্ধি করছে। বিজ্ঞানীরা চিহ্নিত করেছেন যে এই অঞ্চল বেশ কিছু সক্রিয় টেকটোনিক প্লেটের বাউন্ডারির সংযোগস্থল – যার মধ্যে ২০০৪ এর ভয়াবহ সুনামি চালিত ভূমিকম্পের উৎসস্থলের প্লেটটির শেষ প্রান্তও রয়েছে।

Beneath Bangladesh: The Next Great Earthquake? from Earth Institute on Vimeo.

সাম্প্রতিক এই গবেষণার ফলে বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হবে ধারণা করি। মধ্যবিত্তদের মধ্যে উন্নত বিশ্বে ইমিগ্রেশনের তোড়জোড় আরো বৃদ্ধি পাবে। আমাদের উচ্চশিক্ষিত মেধাবী তরুনেরা তো নিয়মিত বিদেশ পাড়ি জমাচ্ছেন। এই সংবাদ হয়তো তাদের ফিরতে আরো নিরুৎসাহিত করবে। অথচ ভূমিকম্প মোকাবেলায় আমাদের প্রস্তুতির জন্য এদেরই প্রয়োজন হবে সবচেয়ে বেশি। যদি আদৌ আমাদের প্রস্তুতি নেবার কোনো প্রচেষ্টা থেকে থাকে সরকারের।

কেভিন ক্রাজিকের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়তে ক্লিক করুন এখানে Lurking Under Bangladesh: The Next Great Earthquake?