ক্যাটেগরিঃ ফিচার পোস্ট আর্কাইভ, সেলুলয়েড

তারেক মাসুদকে হত্যা করলো ঘাতক সড়ক দূর্ঘটনা। ভাঙাচোড়া সড়ক আর ফিটনেসহীন গাড়ী ও এর চালক সংঘবদ্ধ পরিকল্পনায় এদেশে সড়ক দুর্ঘটনার যে নীলনকশা বাস্তবায়ন করে চলছে তার কলকাঠি নাড়ছে নিশ্চয়ই অমনোযোগী ও অযোগ্য যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ও তার নিয়ন্ত্রক সরকার। এবারের শিকার তারেক মাসুদ সহ পাঁচজন – এই হত্যাকারীদের নির্মম বলি।

যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে দেশে প্রাণ ক্ষয়ের যে পরিমাণ সড়ক দুর্ঘটনায় এখন তার চেয়ে অনেক বেশী মানুষ মারা যায়। ঢাকা শহর থেকে যে কটা সড়ক বাইরে বের হয়েছে প্রত্যেকটা এক একটা জীবন্ত মৃত্যুকূপ। ঢাকা থেকে গাজীপুর, সাভার বা কাঁচপুর পর্যন্ত সড়কের দুর্বিসহ চিত্র প্রতিদিন পত্রিকায় আসছে অথচ নির্বিকার প্রশাসন।

তারেক মাসুদের এই মৃত্যু পরিস্কার হত্যাকান্ড। সড়ক দুর্ঘটনার নামে ঘাতক বাসের ড্রাইভারকে শাস্তি দিয়ে নিস্তার পাওয়া যাবে না। এর দায়ভার সরকারকে অবশ্যই নিতে হবে। যাদের গাফিলতিতে রাস্তায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ফিটেনেসহীন যানবাহন, ভুয়া লাইসেন্স নিয়ে বনে যাচ্ছে গাড়ীর চালক, অবৈধ টেন্ডারবাজি ও চাঁদাবাজিতে সড়কের হচ্ছে না সঠিক রক্ষণাবেক্ষণ – তারাই দায়ী তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীর সহ এ যাবত সড়ক দুর্ঘটনায় পতিত হাজার হাজার মানুষ হত্যাকান্ডের।

এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হতেই হবে।

***
ফিচার ছবি: তারেক মাসুদ এর ছবি আন্তর্জাল থেকে সংগৃহিত এবং মিশুক মুনীর এর ছবি The Real News এর ফ্লিকার স্ট্রিম থেকে সংগৃহিত