ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) গত দেড় মাস যাবত বন্ধ। গত ১৪ই মে হতে আজ অব্দি ডুয়েট এর ছাত্র ছাত্রীরা তাদের বিশ্ববিদ্যালয় এর ভুমি সম্প্রসারণ এর দাবিতে আন্দোলন কর্মসূচী পরিচালনা করে আসছে।

১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠিত বি আই টি ঢাকা কে ২০০৩ সনে বিগত সরকার ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) এ রুপান্তর করে ।প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয় অত্যন্ত সুনাম এর সাথে তার শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে এবং বাংলাদেশ এর জাতীয় উন্নয়ন এ অবদান রাখছে।কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় হল এই বিশ্ববিদ্যালয় এর ভুমির পরিমান মাত্র ২০ একর যাহা বাংলাদেশ এর অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় এর তুলনাই অতি নগণ্য ইতিমধ্যে এই বিশ্ববিদ্যালয় ইট কাঠের স্তুপে পরিনত হইছে এবং ভুমির সমস্যার কারনে এই বিশ্ববিদ্যালয় এর গবেষণা কার্যক্রম মুখ থুবড়ে পড়েছে ।এ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় এ ছাত্রদের আবাসিক সমস্যা প্রকট আকার ধারন করেছে। শিক্ষার্থীরা তৃতীয় বর্ষে উঠার পরও আবাসিক হল এ সিট পায় না। শিক্ষক কর্মচারীদের আবাসন সমস্যা তো আছেই। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও ছাত্ররা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আগত স্থানীয় এম পি ও সরকার এর গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় এর মন্ত্রিদের কাছে এই ব্যাপারে সাহায্য কামনা করেও কোন ফল পায়নি।গত এপ্রিল মাসে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্র দেড় আবাসিক সমস্যা নিরসনে অত্যন্ত নিরুপায় হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় এর একমাত্র খেলার মাঠে হল নির্মাণ শুরু করে সাধারন ছাত্ররা এর তীব্র প্রতিবাদ করে তখন থেকে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে আসছে এবং গত ১৪ই মে থেকে তাদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা বর্জন করেছে ।ইতিমধ্যে তারা স্থানীয় দুই এম পি সহ শিক্ষা মন্ত্রী ইউজিসি চেয়ারম্যান এবং বন মন্ত্রনালয়ে বিষয়টি অবহিত করেছে এবং স্মারক লিপি পেশ করেছে । তারপরেও কোন কাজ না হওয়ায় তারা আগামি রবিবার গাজীপুর চৌরাস্তা অবরোধ তার পর দিন উত্তর অঞ্চল ট্রেন লাইন অবরোধ ও আগামি ২৭শে জুন ঢাকা মুখি লং মার্চ ঘোষণা করেছে এবং দাবি আদায় হওয়া না পর্যন্ত তাদের কর্মসূচী অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে ।