ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস সম্প্রসারণ এর দাবিতে ঢাকা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) এর ছাত্ররা আগামী কাল তাদের পূর্ব ঘোষিত লং মার্চ পালন করবে ।এই লং মার্চ উপলক্ষে ডুয়েট আঙ্গিনায় এখন উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। ক্যাম্পাস পরিনত হয়েছে সাবেক ও বর্তমান ছাত্রদের মিলন মেলার স্থান।

ঢাকা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যলয় (ডুয়েট) এর ছাত্ররা গত ১৪ই মে থেকে তাদের খেলার মাঠে আবাসিক হল নির্মাণকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় এর ভূমি সম্প্রসারণ এর দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। ওই একই দিন থেকে ছাত্ররা তাদের ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে আসছে।বিশ্ববিদ্যালয় এর ভূমির পরিমান মাত্র ২০ একর হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় এর যাবতীয় উন্নয়ন কার্যক্রম থমকে গেছে। একটিমাত্র একাডেমিক বিল্ডিং থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয় এর যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালিত হয়। নেই পর্যাপ্ত আবাসন সুবিধা ।গবেষণা কার্যক্রম এর সম্প্রসারণ ভূমির অভাবে করা যাচ্ছে না।নেই কোন খেলার মাঠ। এ ছাড়াও ভূমি অভাবজনিত নানা সমস্যায় জর্জরিত এই ক্যাম্পাস। বিভিন্ন সময় সরকার এর বিভিন্ন উচ্চ মহল থেকে আশ্বাস পাওয়ার পরেও এই বিশ্ববিদ্যালয় এর ভূমি সম্প্রসান এর ব্যাপারে কোন প্রকার উদ্যোগ না নেওয়ায় ছাত্রদের পুঞ্জিভূত ক্ষোভ এর বহিঃপ্রকাশ আজকের এই আন্দোলন। এরই অংশ হিসেবে আগামী কাল ২৭ই জুন ঢাকা মুখী লং মার্চ এর আয়োজন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এই বিশ্ববিদ্যালয় এর সাবেক ছাত্ররা এই লং মার্চ এর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছে এবং এবং ইতিমধ্যে তারা লং মার্চ এ অংশ নেয়ার জন্য ক্যাম্পাসে আসতে শুরু করেছে এর ফলে ডুয়েট ক্যাম্পাস সাবেক ও বর্তমান ছাত্রদের মিলন মেলায় পরিনত হয়েছে। ভূমি সম্প্রসারণ আন্দোলনকে সফল করার লক্ষে ডুয়েট এর রাজনৈতিক সংগঠন গুলো সকল ভেদাভেদ ভুলে এক মঞ্চে ঐক্যবদ্ধ । ছাত্রলীগ ছাত্রদল শিবির ও বাম সংগঠনকে একত্রিত করে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠন করা হয়েছে। এই সংগঠন এর আহবায়ক করা হয়েছে ছাত্রলীগ এর সভাপতি আবদুল্লা আল মাসুমকে।আজকে সাড়ে দশটায় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ এর মিছিল শেষে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এই আন্দোলন এর আহবায়ক আবদুল্লা আল মাসুম অভিযোগ করেন লং মার্চ কে স্থগিত করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও স্থানীয় এমপিদের পক্ষ থেকে তার উপর প্রেসার আসছে।তিনি বলেন আজ প্রায় দুই মাস আমরা ভূমির জন্য আন্দোলন করছি আমাদের জীবন থেকে আমরা আমাদের প্রিয় ডুয়েট এর জন্য দুই মাস দান করলাম প্রয়োজনে আরও করব আজকে যারা আমাদের আন্দোলন ত্যাগ করে ক্লাসে ফিরে যেতে বলছেন তাদের বলছি আমরাও চাই ক্লাসে ফিরে যেতে তাই আমাদের ন্যায্য দাবি মেনে নিন। যদি আমাদের দাবি মানা না হয় তাবে আমাদের এখন কার প্রোগ্রাম লং মার্চ হলেও আগামী প্রোগ্রাম ঢাকা অবরোধ হবে। আমরা এত দিন শান্তি পূর্ণ কর্মসূচী পালন করলেও দাবি না মানা হলে আমরা দেশের উত্তর অঞ্চলকে ঢাকা থেকে বিছিন্ন করে দিব ।আমাদের ছাত্রদের এতদিন এর ত্যাগ বৃথা যেতে পারে না। আমরা আমাদের ভূমি আদায় করে তবেই ক্লাসে ফিরে যাব ইনশাআল্লাহ।আগামি কাল এর লং মার্চ সফল করার জন্য তিনি অডিটরিয়ামে বেলা দুইটায় এক প্রস্তুতি সভায় সকলকে উপস্থিত থাকার আহবান করেন।