ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

শুক্রবার। সকাল ৮টা পার হয়েছে। জিন্দাবাদ জিন্দাবাদ স্লোগান আর আগুয়ান মিছিল দেখা গেল। মিছিলের সারিতে বেশির ভাগই কম বয়সী তরুণ। হাতে ব্যানার। মুখে স্লোগান। ব্যানার দেখে বোঝা যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত এরা। ব্যানারের মূল শীর্ষক হচ্ছে ’ইসলামি শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সম্মেলন’। কোনো কোনো ব্যানারে বড় করে লেখা ’সফল হউক’। বিষয়টা নিছক কাকতাল হতে পারে – কোনো একটা ব্যানারে মুষ্টিবদ্ধ হাতের প্রতীক লাল রঙে মুদ্রিত। এমনটা দেখলে সবাই বাম ঘরানার ছোঁয়া ভাবে। যদিও বিপ্লবের প্রতীক হিসেবে মুষ্ঠিবদ্ধ হাত সকলের প্রত্যাশা। আর বিপ্লবে নামে রক্ত দেয়া আর নেয়া তো চলছেই। তাই লাল রঙ সকলের ব্যানারে, ফেস্টুনে, পোস্টারে।

IMG_3338 IMG_3339 IMG_3341 IMG_3342

IMG_3344
’ইসলামি শাসনতন্ত্র’ কায়েমে ছাত্রদের এগিয়ে দেয়ার বিষয়টা লক্ষনীয়। একেবারে সাংগঠনিকভাবে। মূল সারির রাজনৈতিক দলগুলোর অংশ হিসেবে ছাত্র সংগঠনগুলোকে এভাবে সুনির্দিষ্ট এজেন্ডা নিয়ে কাজ করতে দেখা যায় না। বিপরীতে তরুণ-যুবকদের জন্য এই ’ইসলামি শাসনতন্ত্র’ ছাত্র আন্দোলন সংগঠনটি বেশ পরিকল্পনা করে এগিয়েছে। ওয়েব সাইট, প্রকাশনা, ফেসবুক পাতা – সবই বিদ্যমান।

সরকারি ওয়েবসাইটগুলোর বেশিরভাগ যেভাবে মেইনটেইন হয়, তাতে ডিজিটাল সরকারের প্রতি অনেকেই উপহাস ছুঁড়ে দেন। জামাত-ই-ইসলামির ওয়েবসাইট যেমন সব সময় হালনাগাদ থাকে, ’ইসলামি শাসনতন্ত্র’ ছাত্র আন্দোলনের ওয়েব সাইটও বেশ গোছানো পাওয়া যায় – http://www.iscabd.org। এই সাইটটি নতুন। সম্ভবত এই সংগঠনের পুরাতন সাইট লিংক http://www.islamiandolanbd.org/। এই সংগঠনের ফেসবুক পাতাও রয়েছে। শুধু তাই নয়, পাঠ্যসূচী, ইসলামি শাসনতন্ত্র কায়েমের রাস্তা বাতলে দিতে এদের সকল প্রকাশনা নিয়ে একটি অনলাইন লাইব্রেরিও রয়েছে।

পত্রিকার পাতায় যদিও বিভিন্ন প্রতিবেদন রয়ে গেছে, যা রাষ্ট্রকে সতর্ক থাকার বার্তা দেয়। ’ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সভাপতিসহ আটক ৬‘ – প্রতিবেদন এসেছিল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে, ২০১৩ সালে। “ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতাসহ আটক ৩৫” – ২০১৫ সালের নভেম্বরে প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছিল দৈনিক মানব কণ্ঠে। তথাপি এরকম সংগঠনগুলোর অনলাইন সাংগঠনিক তৎপরতা অব্যাহত থাকার বিষয়টি কী করে প্রশাসনের দৃষ্টি গোচরের বাইরে রয়ে যায়, তা ভাবনার বিষয়ই বটে!