ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

sadness

আকাশ যতই বিশাল হোক না কেন আকাশের যেমন শেষ আছে। আমাদের প্রত্যেকটি জীবনেরও শেষ  আছে। জীবনের পরিধি যত বড়ই হোক না কেন প্রত্যেক জীবনের সমাপ্তি ঘটবেই এটিই বাস্তবতা। আমাদের দেশের কোটি মানুষের ভিড়ে একটি অংশ আছে যারা সবসময় অবহেলিত। স্বার্থের পৃথিবীতে অবশ্য সবাই উপরে উঠতে চায় ।আর এই উপরে উঠার জগতে প্রতিনিয়তএকদল লোক আর একদল  লোককে  কাঁকড়ার মত টেনে হিঁচড়ে নামিয়ে নিজে উপরে উঠার প্রতিযোগিতায় মত্ত । কেউ কার সুখ দুঃখের ভাগীদার হতে যেমন চায় না তেমনি সমাজের, রাষ্ট্রের আশপাশের মানুষদের প্রতি যে দায়িত্ব আছেতাও পালন করতে চায় না ।আমরা তো মানুষ পশু পাখি নোই আমাদের চোখ আছে দেখার জন্য তাই বলে কি শুধু দেখেই যাব। আমাদের হাত আছে  আমরা চাইলেই নিজ নিজ স্থান থেকে সমাজে ঝড়ে পড়া মানুষগুলোকে তুলে ধরতে পারি। আমাদের কান আছে আমরা কি শুধু সুনেই যাব নাকি কানে আশা সেই শব্দের জবাব দিব। আমাদের প্রত্যেকটি প্রানের বিবেক আছে ভাল মন্দ বোঝার ক্ষমতা আছে। নিজ নিজ স্থান থেকে আমরা  চাইলেই আমাদের আশপাশের মানুষগুলোর পাশে এসে দাড়াতে পারি। ক্ষমতা অনুযায়ী হাত বাড়িয়ে দিতে পারি। আমরা যারা শৌখিন জীবন যাপনে অভ্যস্থ আলো ঝলমলে থ্রি স্টার ফাইব স্টার রেস্টুরেন্টগুলোতে বাহারি পদের খাবার অর্ধেক খেয়ে অর্ধেক স্টাইল করে ফেলে দিচ্ছি । তারা এক মহুত্যর জন্য যদি চোখ বন্ধ করে ভাবতাম আর বুঝতে চাইতাম। রাস্তার পাশের ডাসবিনে বসে সেই ফেলে দেয়া  ময়লা মাখা খাবার খাচ্ছে কোন এক ক্ষুধার্ত। তাহলে নিশ্চিত যে এই ক্ষুধার্তের পাশে না দাড়িয়ে পারতাম না। একবেলা হলেও তাদের মুখে খাবার তুলে দিতাম। সমাজে আমরা অনেক উচ্চবিত্ত আছি যারা জন্মসূত্রে বিত্তবান। চাইলেই অন্যের দুঃখ দূর করতে পারি। অসহায় নিম্নশ্রেণীর মানুষগুলোর দামি গাড়ি বা বাড়ি অথবা থ্রি স্টার বা ফাইব স্টার রেস্টুরেন্টে বসে খাবার প্রয়োজন পড়ে না। দু’বেলা, দু’মুঠো মোটা ভাত হলেই তারা অনেক সুখে থাকতে পারে। শুধুমাত্র একটি বিশেষ মহল যেমন সরকার বা এঞ্জিওগুলোর উপড়ে ছেড়ে দিলেই এদের দুবেলা দুমুঠো ভাতের সন্ধান হবে না । সমাজের প্রত্যেকেই যদি নিজেদের আশপাশের লোকদের পাশে এগিয়ে আসি তবেই সম্ভব। সবাই মিলে ভাল থাকা ।

url

আসুন জীবনের যে সত্যিকারের অর্থ তা একটু অনুধাবন করার চেষ্টা করি। অনুধাবন করতে চেষ্টা করি যে আমি মানুষ আমার সমাজের জন্য আশপাশের মানুষগুলোর জন্য কিছু করা দরকার। শুধুমাত্র আমি একা ভাল থাকলাম এই ভাল থাকার মাঝে গর্ব করার কিছু নেই। যখন আমার সমাজের, দেশের,আমার আশপাশের মানুষগুলোর সুখ দুঃখে পাশে দাড়াতে পারব। যখন আশপাশের মানুষগুলো ভাল থাকবে তখন গর্ব করে বলতে পারব । আমি ভাল আছি। আমরা সবাই মিলে ভাল আছি।  সুখে আছি।