ক্যাটেগরিঃ দিবস প্রসঙ্গ

 

সবার প্রতি শুভ কামনায় একটা কথা আমি সব সময় বলি ,

ভাল থাকুন এবং নিরাপদে পথ চলুন। কারণ, ভাল থাকার আকুলতা সব কিছুর উর্ধে । আর নিরাপদে পথ চলার ব্যাপারটা তো আমাদের দেশে মহা চ্যালেঞ্জিং । সুস্থ দেহ নিয়ে মা তার সন্তানকে স্কুলে দিতে যায় । ছাত্র হিসেবে স্কুলে পৌঁছানো কিংবা বাড়ি ফেরার পথে গন্তব্যে না পৌঁছে লাশ হয়ে পরোপারে যেতে হয় । ঠিক তেমনি অফিস যেতে , রাস্তা পার হতে , পিকনিক করতে, এমন কি বিয়ে করতে গিয়েও লাশ হয়ে ফিরেছেন এমন ঘটনা অনেক ।

সড়ক দুর্ঘটনায় তারেক মাসুদ, মিশুক মুনীর, মিরসরাইয়ে ৪০ জন ছাত্র সহ অনেক রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্বসহ অনেক সাধারন মানুষের মৃত্যু হয়েছে । আমাদের কিছু রাজনৈতিক ব্যাক্তি অবশ্য মনে করেন , আল্লাহ্‌র মাল আল্লাহ্‌ নিয়ে গেছেন । নেতাজী , ভালই বলেছেন, আপনার কি ? যার ব্যাথা, সে বোঝে । অবশ্য কেউ কেউ অলরেডি টের পেয়ে গেছেন । ঘর থেকে যখন বাহিরে বের হই, বিশেষ করে যখন ভ্রমন করি, একটা চাওয়াই থাকে, নিরাপদে যেন পথ চলতে পারি ।

যে উদ্দেশ্যে লিখা, তাহলো আমরা সবাই জানি, আমাদের প্রিয় অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন দীর্ঘ ১৯ বছর ধরে নিরাপদ সড়কের দাবীতে আন্দোলন করে আসছেন। তাঁর স্ত্রী ১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। তাই তাঁর স্ত্রীর মৃত্যু দিবস ২২ অক্টোবরকে নিরাপদ সড়ক দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবী করে আসছেন । আমরা এই দীর্ঘ সময় ধরে এই দাবিতে আন্দোলন করতে দেখেছি। তাঁর মত এই কষ্ট যেন আর কেউ না পায় এই চেষ্টাই তিনি করে যাচ্ছেন। এই আকুলতা আমাদের মত সাধারন মানুষকে নাড়া দিয়েছে। আমরা তাঁর সফর সঙ্গী হয়েছি । নিরাপদ সড়ক চাই ( নিসচা ) নামে একটি সংগঠন করেছেন ।

যোগাযোগ মন্ত্রণালয়য়ের একাধিক কার্যবিবরণীতে দেখা গেছে, বর্তমান সরকারের আমলে ও ২২ অক্টোবরকে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস ঘোষণার ব্যাপারে ইতিবাচক উদ্যোগ ছিল। কিন্তু সড়ক দিবস ঘোষণা বিষয়ে আন্তঃ মন্ত্রনালয় সভায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি ১১ জুলাইকে নিরাপদ সড়ক দিবস ঘোষণার প্রস্তাব দেন। যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের সড়ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব এম এ এন সিদ্দিক বলেন, দিবস ঘোষণার নিয়ে যেন আরও স্বচ্ছতা আসে, সেজন্য যোগাযোগ মন্ত্রীর নির্দেশে চারটি দিবসকে চিহ্নিত করা হয়েছে –

২২ অক্টোবর – সড়ক দুর্ঘটনায় ইলিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী নিহত হন ।

৩১ জুলাই – সড়ক দুর্ঘটনায় সচিব রাজিয়া বেগমসহ দুজন সরকারী কর্মকর্তা নিহত হন ।

১৩ আগস্ট – সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ ও সাংবাদিক মিশুক মুনীর নিহত হন ।

১১ জুলাই –সড়ক দুর্ঘটনায় চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ৪০ জন ছাত্র নিহত হয় ।

যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের ওয়েবসাইটে সড়ক দুর্ঘটনার এই ৪ টি তারিখ দিয়ে জনগনের ভোট চাওয়া হয়েছে। একটি কম্পিউটারে এক ব্যক্তি একটি ভোট দিতে পারবে (২৩ নভেম্বর রাত ১২ টা পর্যন্ত)। আমরা সবাই নিরাপদ সড়কের দাবীতে এতদিন ইলিয়াস কাঞ্চনের সাথে আন্দোলন করেছি। ২২ অক্টোবরকে পালন করে আসছি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রীও দিবসটি ঘোষণার জন্য নীতিগত অনুমোদন দিয়েছিলেন । কিন্তু এখন কি হচ্ছে? শুধু ইলিয়াস কাঞ্চন কেন, আমরাও বলছি, আমাদের দেশের মানুষের কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট ব্যাবহারের সুযোগ কম। এই জরিপ তাহলে কিভাবে সফল হবে ?

আমরা এত কথা বুঝি না, সবার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, যে মানুষটি দীর্ঘ ১৯ বছর ধরে এ নিয়ে সংগ্রাম করে আসছেন, তাকে এইভাবে কেন ঠকানো হচ্ছে ?

এ কেমন প্রহসন ? আমরাও এ সংগ্রামে সংগ্রামী জনতা । আমাদের কি বলবেন ?

আমি মনে করি ২২ অক্টোবরকে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস করা হোক। আশা করি আপনারা এতে সহমত প্রকাশ করবেন ।

লিয়া সরকার