ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

২০১৫ সনের প্রথম বছরের প্রথম মাস থেকেই কেমন যেন এলোমেলো মনে হচ্ছে। চারিদিকে অস্থিরতা, অনিরাপত্তা, এলোপাথারি কর্মকাণ্ড যা আমাদের সাধারন জনগনের জন্য তো নয়ই বরং ছোট বড়, শিশু ছেলে মেয়ে ছাত্র ছাত্রী ব্যবসায়ী সকল ধরনের পেশাদারী মানুষের জন্যই ভাল কিছু নয় । রাজনৈতিক নেতাদের মুখের বুলি – খেলা রঙ্গরস সবকিছুই ক্ষমতাকেন্দ্রিক । সব নেতাই যখন বক্তব্য দেন, মিডিয়া টক শো’তে কথা বলেন তখন মনে হবে তারা কত দেশপ্রেমিক, কত উদার, কত সাদা মনের মানুষ। তবে নিজের ছোট মনে পরিচয় দিতেও কোনভাবে তারা কুন্ঠাবোধ করেনা । মুখে যতই সাদা মনের মানুষের বুলি আওড়াক না কেন তাদের চারিত্রিক বিলাসিতার মুখোশ কোন ভাবেই লুকিয়ে রাখতে পারেনা কেউ ।

যাবে কোথায় মানুষ ? কখন কী হবে কেউ কিছু বলতে পারেনা । গাড়ি পোড়ানো , পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ, বিক্ষোভ মিছিল, ভাঙচুর কখন হঠাৎ করে হয়ে যায় কেউ ‍কিছু নিশ্চয়তা দিতে পারেনা । ১০০% নেতা , মানুষ সবাই মনবতার কথা বলে, অধিকারের কথা বলে, জীবনের নিরাপত্তার কথা বলে, শান্তির কথা বলে গনতন্ত্রের কথা বলে । অথচ ক্ষমতার লোভ-লালসা কেউ সামলাতে পারেনা । অন্যের রক্ত দিয়ে খেলা খেলে হলেও জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা করে হলেও ক্ষমতার মসনদ পেতেই হবে।

সাধারন মানুষ একেবারে জিম্মি। অসহায়ের প্রশান্ত মহাসাগড়ে যেন ভেসে চলেছে যার কোন কূল কিনারা নাই । ভাসতে ভাসতে কোথায় যাবে, পাড়ে উঠবে কিনা, নাকি মহাসাগড়ের তলদেশে বিলীন হয়ে যাবে তা কেউ কিছু বলতে পারেনা বা তার সমাধান দিতে পারেনা এ মুহূর্তে । স্বাধীন দেশে আমি-তুমি-সবাই জীবনের অনিরাপত্তার বলয়ে-শৃংখলে খুব পরাধিন । এর শেষ হওয়া প্রয়োজন, সবাই জানে সবাই বলে এবং সবাই চায়। কিন্তু কীভাবে হবে জানার পরও সে পথে যেতে পারেনা কেউ এবং যাওয়া হয়না – জানার মধ্যেই সীমাবদ্ধ যেন ।