ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

আমি যখন এই লেখা লিখছি তখন আমি ব্যবহার করছি গ্রামীণের ইন্টারনেট কানেকশন কারণ গত দেড় সপ্তাহ আগে বাংলালায়ন ওয়াইম্যাক্সের ইউ এস বি মডেম কিনে ৬০০ টাকা খরচ করে বুঝতে পারলাম আসলে সবই ডিজিটাল ফাকি ।

এখন আসি আসল ঘটনাই, আমি বাংলালায়ন ওয়াইম্যাক্সের ইউ এস বি মডেম কেনার পর নিজে যতটা না ব্যবহার করেছি তার থেকে বেশি ব্যবহার করেছে আমার স্ত্রী আর ৫ দিনের মাথাই সে আমাকে জানাল মডেম কাজ করছে না। তো যথারীতি ভাবলাম হয়ত অনেক ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি করার কারনে লিমিট শেষ করে ফেলেছে অথবা অন্য কোন ঝামেলা। যা হোক অফিস থেকে ফেরার পথে ৩০০ টাকা দিয়ে একটা কার্ড কিনে আনলাম এবং রিচার্জ করলাম। একাউন্ট ব্যালেন্স দেখলাম ১০২৪ মেবাঃ (১ জি বি), এরপর আমি একটা ফাইল ডাউনলোড করলাম যেটার সাইজ ১৫ মেবাঃ।

ডাউনলোড করার পর আমি লগ আউট হলাম এবং পুনরায় লগইন করলাম দেখার জন্য যে আমার এখনকার ব্যালেন্স কত, যা দেখলাম তাতে আমার চক্ষু চড়কগাছ কারন আমার ১৫ মেবাঃ ফাইল ডাউনলোড করার জন্য কাটা হয়েছে ৬৫ মেবাঃ (!!)।

এরপর আমি আর একবারের জন্যও কোন কিছু না করে শুধু লগইন করে ৫ মিনিট অপেক্ষা করলাম দেখার জন্য যে কোন ব্রাউজিং না করলেও তারা কি টাকা কাটে নাকি না এবং লক্ষ্য করলাম যে কিছু না করলেও আপনা আপনি একাউন্ট ব্যালেন্স কমতে থাকে। ভাবতে পারেন ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে অন্য কোন প্রোগ্রাম হয়ত ইন্টারনেট ব্যবহার করছে, কিন্তু আমি এগুলো ভাল করে দেখেই এই লেখা লিখছি। এভাবে আমি নিজে বেশ কয়েকবার পরীক্ষা করে দেখেছি এবং প্রতিবার একই ফলাফল এবং আমার বন্ধুকে তার নিজের বাসাতেও চেক করার জন্য বললাম এবং তারও আমার মত ফলাফল।

যদি আমার কথা বিশ্বাস না হয় আপনি নিজে পরীক্ষা করে দেখুন, এবং আমি বুঝতে পারলাম কেন তারা অটো কানেকশন সুবিধা দিয়ে রেখেছে, যাতে মডেম লাগানো থাকলেই তারা টাকা আয় করতে পারে।