ক্যাটেগরিঃ মতামত-বিশ্লেষণ

 

কতকাল এ চুরি আর খাওয়া চলবে? এর বিরুদ্ধে দাঁড়াবার কি কেউ নেই? সবাই ক্ষমতার বাইরে থেকে জনতাকে প্রত্যাশা দেয়, মানুষ আশায় বুক বাঁধে. ….কিন্তু মানুষ আর কত আশায় বুক বাঁধবে? কেন মানুষ বছরের পর বছর বিরম্বনা সইবে? শুধুই কি কারো ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নাকি গণমুক্তির জন্য……? এগুলো কে জনতাকে পরিস্কার করে বলবে? আশ্রয়, খাদ্য, বস্ত্র, চিকিৎসা, শিক্ষার নিশ্চয়তা নেই। দূর্নীতি নেই এমন কোন দপ্তর ও খাত নেই। মনুষ্যত্ব বিকাশের পথ রুদ্ধ। বিচারের নামে অবিচার। ৪ কোটি নাগরিক বেকার অথচ রাষ্ট্রীয় গণহত্যা চলছে অবিরত।

শিশুদের খেলার মাঠ দলীয় কর্মীদের দখলে । প্রতি উপজেলায় শিল্পকলা একাডেমী পাঠাগার খুঁজে পাওয়া যায় না, কিন্তু প্রতিবছর বরাদ্দ থাকে, খায় কে? এমন কোন উন্নয়নের টেন্ডার নেই যেখানে খাওয়ার মহোৎসব নেই। এমনকি estimate বানিয়ে approve করিয়ে নাম না জানা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন ছাপিয়ে তাও হজম করে ফেলা হয়।

ডিজিটাল খাওয়া আরো ভয়াবহ। টেলিকমের কল টার্মিনেশনের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা কোথায় যায়? ডিজিটাল পাসপোর্ট বানানোর নামে কত টাকা কোথায় গেছে? এনালগভাবে বদলী বানিজ্য, চাকুরী প্রদানের নামে কতটাকা কারা খায়? ব্যবসায়ের ট্যাক্স ফাঁকি দিতে না জানলে তো সে ব্যবসায়ীই নয়। তারপরেও ব্যবসায়ীদের চেয়ে আমলাদের সম্পদ ও সম্পত্তির পরিমান বেশী। আর কালোটাকার মালিকেরা এখন মিডিয়ার মালিক। সৎ সাংবাদিকেরা সেখানে (কালোটকার মিডিয়ায়) জাতির সেবায় আত্মনিবেদিত।

দেশের অভ্যন্তরে সবচেয়ে বড় তেজারতী এখন মাদকের তেজারতি। ইন্ডিয়ান সরকারের ছত্রছ্ছায়ায় এই ব্যবসাটি এখন জমজমাট ৩টি কারনে- ১.অঢেল বিত্তের মালিক হয়ে পরে সংসদ নির্বাচন করা। ২. বেকারদের দমিয়ে রাখা। ৩. রাজনীতির জন্য কর্মী বাহিনী তৈরী করা। অন্যান্য কালোবাজারী তো আছেই। আজ পর্যন্ত গুণ্ডাদের যত ক্রসফায়ার হয়েছে, নিরীহ মানুষ ক্রসফায়ার হয়েছে, ১ জনও কি মাদক ব্যবসায়ী ক্রসফায়ার হয়েছে? হয়নি কারন ক্রসফায়ারকারীরাও খায়।

শেষকথা দেশের এনার্জি ও খনিজ সেক্টরের হিসেবই জাতিকে জানানো হয় না। কত বিলিয়নের খাওয়া ঐ চোরদের পকেটে যায় বলবে কে? যেমন কেউ বলেনা শেয়ার মার্কেটের হাজার হাজার কোটি টাকা খায় কারা? কারন সবাই মিলে মিশে খায়। আর দেখার মত যারা আছে তারাও খায়? জনতা যানে সবই শুধু প্রশ্ন করে ”যারা খায় না…তারা আসলে কত খায় না?”

পূনশ্চ: আমার লেখাটিতে মন্তব্য করার সুযোগ রহিত করা হলো বলে দুঃখিত। কারন অনেক আদম সন্তানের অসুস্থ মন্তব্য দেখতে চাই না। যারা লেখাটিকে পছন্দ করবেন দয়া করে তারা লেখাটি অন্যদের সাথে শেয়ার share করলে কৃতজ্ঞ হবো।

—লেখক রাজনীতিক ও সাংবাদিক। ভিন্নমতের কারনে নির্বাসিত।