ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

ভারত আমাদের ১৯৭১ সালে অনেক সহযোগিতা করলেও অনেক সময় ভারত অনেক বিষয়ে আমাদের সাথে দূরত্ব বজায় রেখেছে, ফারাক্কা বাঁধ বাংলাদেশের যেমন ক্ষতি করেছে, তেমনি ভারতীয় অংশে ক্ষতি কম নয়। পদ্মা/গঙ্গা চুক্তি করার পর যে পানি আসে তার সঠিক ব্যবহার আমরা আজো করতে পারিনি।

মমতা ব্যানারজি তিস্তার পানি চুক্তির বিরোধিতা করেছেন ভোটের জন্য, আবার সীমান্তে ছিট-মহল বিনিময় চুক্তির পক্ষে সমর্থন দিচ্ছেন তাও ভোটের জন্য। তিস্তার পানি সমস্যার সমাধান করার জন্য লং মার্চ হচ্ছে। তাতে সবার সমর্থন দেয়া দরকার। এটা ভারত বিরোধীতার জন্য নয়, জনগন এর কল্যাণে এই আন্দোলন দরকার। ভারত তোষামোদ আমাদের জন্য কল্যাণকর নয়।

আল্লাহ ভালো জানেন, আমাদের দেশের পানি সমস্যার সমাধান কি আছে, তবে প্রয়োজন পরিকল্পনার, আমাদের নদী গভীর খনন করে, বর্ষা মৌসুমের পানি সংরক্ষণ করা যেতে পারে, যাতে আমরা অন্য সময়ে পানি ব্যবহার করতে পারি। আবার বড় দীঘি-জলাশয় খনন করা যেতে পারে। সমুদ্র লবন পানি বিশোধন প্রক্রিয়া  চালু করা যেতে পারে, তবে এটা কিছুটা ব্যয়বহুল।

আর ভারত কে অন্ধ সমর্থন দিলে যে আমরা পানি বেশি পাব, এই আশা না করা ভালো। বর্তমান আওমি লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেও পানি সমস্যার কোন সমাধান নেই। পানি নিয়ে বড় অসন্তোষ চলছে, হয়তবা সামনে পানি নিয়ে বিশ্ব যুদ্ধ হলে অবাক হওয়ার কিছুই নেই।

আমাদের দরকার আল্লাহ এর সাহায্য, আল্লাহ আমাদের এই সমস্যা থেকে যেন হেফাযত করেন, আমীন।