ক্যাটেগরিঃ চিন্তা-দর্শন

[প্রিয় পাঠক ব্ন্দঃ
আসসালামু আলাইকুম । আশা করি আল্লাহর রহমতে সবাইভালোই আছেন ।
আজ আমি আপনাদের সাথে একতা সম্পর্কে কিছু কথা শেয়ার করতে চাই ।।]
একতা আমাদের সমাজের একটা উন্নতি লাভের সিঁড়ি । একটা সমাজের উন্নতির প্রারম্ভে একতা আবশ্যিক ।একতা ছাড়া একটা সুন্দর ,সু-শঙ্খল সমাজের কথা শুধু সপ্নেই থেকে যায় ।একতার কিছু উদাহরণ আছে ,যা থেকে একটা সমাজের শিক্ষা লাভ করা অতি প্রয়োজনীয় ।এতে করে সমাজ তার বাহুবল ঠিক করার বিরাট সুযোগ পেয়ে যায় ।যেমনঃ পিঁপড়ার উদাহরণটা এখানে তুলে ধরা যাক ।একটা পিঁপড়া যখন একটা ভাতকে টানতে টানতে নিয়ে যায় ,তখন লক্ষণীয় বিষয় হলো যে ,ঐ পিঁপড়ার চেয়ে ভাতের আকারটা স্বভাবতই ৩/৪ গুণ বড় হয়ে থাকে ।কখনো সে একাই ভাতটিকে কষ্ট করে নিয়ে যায় ,আবার কখনো সে ২/৩ জন এর সাহায্যে নিয়ে যায় । আবার দেখা যায় যে ,পিঁপড়ার সমাজের মধ্যে একটা কোন মানুষের পা ভুল করে পড়লেও তারা প্রত্যেকে একতাবদ্ধ হয়ে আক্রমণ করে ।তারা চলার সময় নিয়ম মাফিক সারিবদ্ধ হয়ে চলে । পিঁপড়ার এই প্রশংসনীয় গুণ গুলো পিঁপড়াদেরকে একটা নতুন ,সুন্দর ও সাবলীল সমাজ উপহার দিয়েছে । তাছাড়া আজ প্রায় সবাই দেখেছেন ইত্যাদিতে , শৈলান গ্রাম সম্পর্কে ।একতা যে ,কোন গ্রামকে ও গ্রামের মানুষদের মাঝে এতটা আন্তঃরিকতা গড়ে তোলে ,তা এই শৈলান গ্রামের উদাহরণের চেয়ে আর বড় উদাহরণ কি হতে পারে । গ্রামটি কত সুন্দর নিয়ম মাফিক ও আন্তঃরিকতায় পরিচালিত হয় । যা দেখে আজ আমি সত্যিই মুগ্ধ হয়েছি । একতা যে মানুষের মাঝের সম্পর্ককে এতটা উন্নতির শিখরে নিয়ে যেতে পারে তা সত্যিই আমার জানা ছিল না ।গ্রামের যুবকদের তাদের গ্রামের প্রতি অনেকখানি ভালোবাসা আজ উপলব্ধি করলাম ।যা দেখে মানুষের শিক্ষা লাভ করে ,তা বাস্তবিক পক্ষে কাজে লাগানো উচিত । এতে করে সমাজের সবার মাঝে একটা আন্তঃরিকতা চলে আসবে ।যা পরবর্তিতে সমাজের কিছু কলুষিত কাজ করতে সমাজের মানুষের বিবেকে বাঁধা দেবে ।