ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

 

নির্রাচন আসলো অনেকেই প্রার্থী হলেন।অনেক সুন্দর সুন্দর নির্বাচনী ইশতেহার দিলেন।এবং সেগুলোর মাধ্যমে আমাদেরকে সপ্ন দেখিয়েছিলেন।আমার সেই ইশতেহার গুলো শুনে ভাবতাম যদি সত্যি আমার এই ঢাকাটা এমন করে কেউ সাজাতো। তাহলে কত সুন্দরই না হতো।যাক নির্বাচন হলো মেয়র নির্বাচিত হলো।কিন্তু কই এখন বৃষ্টি হলে বাসা থেকে নামতে পারি না।রাস্তায় হাটু পরিমান পানি।এখন হাটলে দেখি রাস্তার দুই পাশে ময়লার স্তুপ দুর্গন্ধ চারদিকে চরাচ্ছে। মানুষ রোগাক্রান্ত হচ্ছে।যেন কেউ দেখার নেই।এখন শুনতেছি ফুটপাত অপসারন করা হচ্ছে। সিটি কর্পারশনের পক্ষ থেকে।এটা ভালো উদ্ধেগ।কিনন্তু আমার কথা হলো যাদেরকে উচ্ছেদ করা হচ্ছে তাদেরকে যদি নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি না করে দেওয়া হয়। তাহলে তারা খাবে কি।তারাওতো মানুষ তাদেরতো বাচতে হবে। কিন্তু না একজনের সুখের জন্য আরেকজনকে রাস্তার ফকির বানানোর পায়তারা চলছে।চাইনা ফুটপাত পরিস্কারেরর নামে গরিবের পেটে লাথি মারা।তবে উচ্ছেদ করলে অবশ্যই তাদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে হবে।জ্যাম নিরাসনে কত ইশতেহার দিলেন। কই এখনতো ঢাকার রাস্তায় সেই আগের চিরচেনা রুপ।কোন পরিবর্তন দেখতেছিনা। এখন আরেকটি কথা শুনা যাচ্ছে অর্থসংকটে সিটি কর্পারশন। কথা হলো এতদিনতো মেয়র ছিলো না।এই যে কোটি কোটি টাকা কর আসতো।সেগুলো কই।কারা খেলো সেইসব?নেই কোন উত্তর নেই সেইসব কুমিরের পেটে। দীর্ঘ দিন পর আমরা মেয়র পেয়েছি,সোটা প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের মাধ্যমে হলেও।পূবের কথা ভূলে আমাদের আশা আপনার যে ইশতেহার দিছেন সেই অনুসারে কাজ করে। একটু শান্তিতে থাকার মতো। একটা ব্যাবস্থা করে দিবেন এটাই ঢাকাবাসীর প্রনের দাবি।