ক্যাটেগরিঃ জনজীবন

আজ বিকালে বাজারে গেলাম।বাজার করতেছিলাম, হঠাৎ শুনলাম চিল্লাপাল্লা। তাকাতেই দেখি এক রিক্সাওয়ালাকে একজন মারছে। কিছুক্ষণেরর মধ্যে যুক্ত আরো কয়েকজন। কেউবা থাপ্পড় কেউবা গালি দিয়ে যাচ্ছে। কাছে গিয়ে জানতে চাইলাম, কী হলো ভাই? একজন বলল, এক্সিডেন্ট করেছে। আমি বললাম, কই কাউকে তো আহত দেখছিনা। কে এক্সিডেন্ট হলো? লোকটি বললো, আমি জানি না। তাহলে আপনি তাকে মারছেন কেন? কোন কথা নাই। মাথা নিচু করে স্থান ত্যাগ করলো। অবশেষে মাইর থামলেও এখন চলছে মুখের এ্যাকশন। এবার আসল ঘটনাটা জানতে পারলাম। রাস্তায় জ্যাম থাকার কারনে রিক্সা ঘুরাতে গিয়ে একজনের গায়ে একটু লেগে যায়।এই জন্য তাকে এতো মাইর দেওয়া হইছে। যাহারা ঘটনাটা দেখেনি তারাও মাইর দিতে কার্পন্য করেনি। আসলে আমারা হুজুগে বাঙালিরা না জেনে না বুঝে গিয়ে তাকে মারা শুরু করলাম। একবারো কি মনে পরে না সেও তো মানুষ। তারা আমাদের বিপদের বন্ধু। যেখানে তাকে বাঁচানোর কথা সেখানে উল্টা তাকে মাইর দিয়ে দিলাম। দরকার আমাদের দৃষ্টি ভঙ্গির পরিবর্তন। গরিব, অসহায়দের অসহায় হিসাবে না দেখে মানুষ হিসেবে দেখ। সবাইকে ভালোবাসতে শেখো। তাহলে এই সুন্দর পৃথিবীতে শান্তি বিরাজ করা সম্ভব।