ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

হজের পরে মুসলিমদের বৈশ্বিক যেকোনো বড় সমাবেশ হল বিশ্ব ইজতেমা। তাবলিগ জামায়াতের বৈশ্বিক এ সমাবেশ বাংলাদেশের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে প্রতিবছর অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা এতে অংশগ্রহণ করেন।

 

 

তুরাগ নদীর তীরে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমার ন্যায় বাংলাদেশের ৩২টি জেলায় বছরান্তে পর্যায়ক্রমে জেলা ভিত্তিক ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। এ আয়োজনের অংশ হিসেবে এবার খাগড়াছড়ি জেলা সদরের জিরোমাইল মারকাজ মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় ২২ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) থেকে শুরু হচ্ছে তিন দিনব্যাপী ইজতেমা। ২৪ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ ইজতেমা।

জেলার এই ইজতেমাকে সফল করতে জেলার তাবলিগের সদস্যরা স্বেচ্ছাশ্রমে মাঠ, প্যান্ডেল, অস্থায়ী টয়লেট ও অজুখানা তৈরির জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে ইজতেমায় আসা মুসল্লীদের সুবিধার্থে টাঙ্গিয়ে দেওয়া হয়েছে ইজতেমা এলাকার মানচিত্র।

 

 

আগত ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা যাতে তাদের নিজ নিজ অবস্থান খুঁজে পায় সেজন্য মানচিত্রে উপজেলা ভিত্তিক নাম দিয়ে নির্দিষ্ট জায়গা দেখানো হয়েছে। এছাড়াও চিত্রে অস্থায়ী টয়লেট, অজুখানা ও খাওয়ার পানি কোথায় আছে তাও দেখিয়ে দেখানো আছে। আয়োজকদের থেকে জানা গেছে, ইজতেমা স্থলের পাশে বসবে অস্থায়ী দোকানপাট।