ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

গত মঙ্গলবার বিডি নিউজের ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালেদীর বক্তব্যের একটি কথা আমার খুব ভালো লেগেছে। আমার মনে হয় তার এই বক্তব্য অনেক মিডিয়া প্রিয় ব্যক্তিও পছন্দ করেছে। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশে আরো অনেক টিভি চ্যানেল হতে পারে। কিন্তু সবাইকে নিউজ করতে হবে এমন কোন কথা নেই। আবার একথাও বলেছেন, যে কেউ ইচ্ছা করলেই চ্যানেল বা সংবাদ মাধ্যমের মালিক হতে পারেনা না। তিনি আমাদের কাছে একটি গুরুত্ত্বপূর্ণ ম্যাসেজ দিতে চেয়েছেন। তা হলো সংবাদ উপস্থাপন বা পরিবেশন যেন একটি গ্রহণযোগ্য মিডিয়া থেকে হয়। যার উপর সবারই আস্থা থাকে। আর এজন্য একটি নীতিমালার প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন তিনি। বর্তমান সময়ে অসংখ্য নিউজভিত্তিক ওয়েব সাইট তৈরী হয়েছে। স্বল্পপুজির কারণে ও অল্প সময়ে ব্যবসা করার সম্ভাবনা থাকয় এবং সমাজে এক ধরণের প্রভাব বিস্তার করার জন্যই এত সাইটের ছড়াছড়ি। কিন্তু এসব সাইটকি নির্ভরযোগ্য নিউজ দিতে পারছে। দুই একটি সাইট ছাড়া সবাই কপি করছে। আবার কখনো কখনো ভুল নিউজ দিয়ে বিভ্রান্ত করছে। কিন্তু দেখার কেউ নেই। অন্য দিকে চ্যানেলগুলো আগে ব্রেকিং দেয়ার প্রতিযোগীতা করে পূর্ণ তথ্য হাতে না পেয়েই ভুল ব্রেকিং দিচ্ছে। যার জন্য দেয়া যায় কারো ব্রেকিং এ মৃতের সংখ্যা ১ হলে অন্যটি দিচ্ছে ২। আবার নিউজের তথ্যগত ভুল দিলে পুর্ণ প্যাকেজই প্রচার করা হচ্ছে। শুধুমাত্র সামজিক প্রভাব সৃষ্টি করার জন্য রাজনৈতিক ব্যাক্তি ও প্রশ্নবিদ্ধ ব্যবসায়ীরা চ্যানেলসহ প্রিন্ট মিডিয়ার মালিক হচ্ছেন। খালেদী সাহেব কে ধন্যবাদ দিয়ে বলতে চাই, এত চ্যানেলের ভিড়ে যদি উপযুক্ত ইলেক্ট্রনিকস সংবাদ কর্মী না পাওয়া যায় তাহলে কেন খোড়া কর্মী বাহিনী নিয়ে নিউজ করতে হবে। তাছাড়া ইলেক্ট্রনিকস মিডিয়ায় সাংবাদিকদের দেখা যায় প্রতিদিনের ইভেন্টের বাইরে নিউজ যেন করতেই পারছে না। কোন বিশ্লেষণ ধর্মী, অনুসন্ধানীমূলক নিউজ করতে তেমন দেখা যায় না। দেশের কৃষি, স্বাস্থ্য, অর্থনীতি, সামাজিক উন্নয়ণমূলক ও শিক্ষা বিষয়ক অনেক পজিটিভ নিউজ করা যেতে পারে। কিন্তু ইলেক্ট্রনিকস মিডিয়ার সাংবাদিকদের দেখা যায় কখন কোন মন্ত্রী কথা বলবেন বা নেবেটিভ কথা বলবেন সাথে সাথে সেই কথা লিড নিউজ করা হচ্ছে। এমন দেখা যাচ্ছে কোন কোন মন্ত্রী প্রতিদিনই একই কথা বলছেন, আর মিডিয়া গুলো সেই কথাগুলো প্রতিদিনই লিড করছে। তাতে দেশ জাতির কি উপকার হচ্ছে।

চ্যানেলগুলো যদি ভালো তথ্যসমৃদ্ধ নিউজ না করতে পারে তাহলে কৃষি,শিক্ষা,বিনোদন,বিভিন্ন বিষয়ে উপর ডকুমেন্টারী ভিত্তিক চ্যানেল করতে পারে। তাতে চ্যানেলগুলো যে ব্যবসা করতে পারবে না একথা বলা যাবে না। যদি পরিকল্পনা মাফিক ও মেধার সমন্নয়ে অনুষ্ঠান করা হয় তাহলে নিশ্চয় ব্যবসা করতে পারবে। আর এ জাতীয় নিউজ করলে যে অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে সাধারণ মানুষ চ্যানেলগুলো থেকে মুখ ফিরিয়ে না নেবে তার গ্যারান্টি কি ?

মাজহারুল হক
মগবাজার, ঢাকা