ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

সেটি বেশ পুরোনো দিনের কথা নয়, বাংলাদেশ বনাম শ্রীলংকা নিদাহাস ট্রফির অঘোষিত সেমিফাইনাল ম্যাচের কথা বলছি। আগে থেকেই লঙ্কান হেড কোচ হাথুরুসিংহে জানান দিলেন যে, বাংলাদেশের আগের ম্যাচগুলোতে সাকিব না থাকার যে ঘাটতি ফুটে উঠেছিল তা সাকিব ফেরায় পূরণ হয়ে যাচ্ছে। এটা থেকে স্পষ্ট ফুটে উঠছে যে সাকিব লঙ্কান শিবিরের জন্য ত্রাস হয়ে দাঁড়াতে পারে।

ঠিক যেন তাই হয়ে উঠলো; কিন্তু তা সাকিবকে দিয়ে নয়, বাংলার সাইলেন্ট কিলার খ্যাত মাহমুদউল্লাহকে দিয়ে। শেষ ০৪ বল যখন বাংলাদেশের হাতে তখনকার নাটকীয়তা কে না জানে! কিন্তু আল্লাহর অশেষ কৃপায় তারা শেষটি করেই দেখালো। বাংলাদেশের জন্য যখন আর ১২ বল বাকি হাতে তখন ৪ উইকেট আর রান প্রয়োজন ২৩। কিন্তু মাঠে তখন একমাত্র ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ, ঠিক তখনই অনেকে হয়তো শেষ আশাটুকু ছেড়ে টিভির পর্দা বন্ধ করে দিয়েছেন। কথায় আছে না, রাখে আল্লাহ মারে কে? বাংলাদেশিরা যে পারে তা এই ট্রফির মাধ্যমে লঙ্কানদের হাড়ে হাড়ে বুঝিয়ে দিয়েছে। ১৬ কোটি বাংলাদেশির আশা তারা পূরণ করতে  সক্ষম হয়েছেন।

এখন তারা পৌঁছে গেছে তাদের গন্তব্য স্থলে বাকি শুধু ট্রফি চিনিয়ে আনার। আশা করি তারা তাদের পূর্ণাঙ্গ শক্তি দিয়ে চেষ্টা করবে ভারতের বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচে জয় ছিনিয়ে আনতে। তারা আবারো হাসি ফুটাতে পারবে কি ১৬ কোটি বাংলাদেশির মুখে? আবারো কি পারবে লঙ্কানদের মাটিতে নাগিন ড্যান্স দেখাতে?
টিম বাংলাদেশের জন্য ফাইনাল ম্যাচে শুভ কামনা এবং সকলের নিকট দোয়াপ্রার্থী।

slide