ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

 

বাঙ্গালী দুধ বেঁচে তামুক টানে তবে নরসিংদীর জনাব মোন্নাফ সাহেব কলা বিক্রি করে সিগারেট টানেন,সিগারেট ধরানোর প্রস্তুতির সময় তার সাথে আমার কথা হয়,
চার সন্তানের জনক এই মোন্নাফ সাহেবকে কয়েকটি কড়া কথা বলতে যেয়ে থেমে যাই প্রাসঙ্গিক আরও দুইটি ছবি মনের পর্দায় ভেসে উঠায়।

উপরের ছবির সন্তানদের প্রায় সবাই উচ্চবিত্ত শ্রেনীর সন্তান যাদের অনেকেই বিশ্ববিদ্যালয় সহ উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনায় রত,সীসা নামক যে মাদকে এরা আসক্ত সেটি চালিয়ে যেতে যথেষ্ট অর্থের প্রয়োজন,মোন্নাফ সাহেবের মতন লোকের যা আওতার বাইরে,

তৃতীয় এবং শেষ ক্যাটাগরির নেশায় আসক্তরা একটু ভিন্ন প্রকৃতির,খোলা চোখে এদের নেশায় আসক্তির বিষয়টা ধরা পরে না,কারণ এরা প্রথাগত নেশা দ্রব্যে আসক্ত না,ইনাদের আসক্তির বস্তুটা হল “টাকা” এরা টাকায় আসক্ত (moneyholic) প্রশাসন/সরকারের বিভিন্ন স্তরে এরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছেন,

সিগারেটে আসক্ত জনাব মোন্নাফ সাহেব হয়ত জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত সিগারেট টেনে যাবেন এই আসক্তির ফল তিনি নিজেই ভোগ করবেন,

সীসায় আসক্ত যুবক-যুবতীরা বন্ধুবান্ধবসহ এক যোগে ধ্বংসের শেষ সীমানায় চলে যাবেন,যাদের কেউ কেউ চিকিৎসা শেষে ভাল হয়েও যেতে পারেন,

শেষোক্ত শ্রেনীর আসক্তরা সবচাইতে মারাত্বক,এরা দেশের সরকারী ব্যংক সমূহে নিরীহ গরীব মানুষের গচ্ছিত রাখা টাকা মেরে খায়।

উপরের তিন শ্রেনীর আসক্তের সবার চিকিৎসা প্রয়োজন।

কৃতজ্ঞতাঃ দৈনিক প্রথম আলো (৩ নং ছবি )