ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জিলা স্কুলের দুই ছাত্রকে আজ বৃহস্পতিবার আটক করে শ্রীঘরে রেখেছে কোতুয়ালী মডেল থানা পুলিশ । হ্যান্ডবল খেলায় হেরে গিয়ে প্রতিপক্ষকে মারধর এবং গাড়ি ভাংচুরের অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয় । জানা যায় , আজ বৃস্পতিবার ময়মনসিংহ জিলা স্কুল হোস্টেল মাঠে বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া সমিতির পদ্ম অঞ্চলের ৪৩ তম গ্রীষ্মকালীন খেলাধুলার অংশ হিসাবে হ্যান্ডবল প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয় । খেলায় অংশ নেয় ঢাকা উপ অঞ্চলের গোপালগঞ্জ জেলার গোবিন্দপুর মুকসদপুর মো: আব্দুল হাই মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ এবং ময়মনসিংহ উপ অঞ্চলের ময়মনসিংহ জিলা স্কুল ।

হ্যান্ডবল খেলায় ময়মনসিংহ জিলা স্কুলকে ৫ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করে মোকসেদপুর মো: আব্দুল হাই মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ এর খেলোয়াররা বিজয়ী হয় ।খেলার শেষ দিকে জিলা স্কুলের খেলোয়ার এবং শিক্ষার্থীরা অতর্কিত মাঠে প্রতিপক্ষ খেলোয়ারদের উপর হামলা চালায় । অবস্থার বেগতিক দেখে কতোয়ালী থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয় । খেলা শেষ হলে এসআই নূর মোহাম্মদের নেত্বত্বে ঘটনাস্থলে হাজির হয় একদল পুলিশ । পুলিশের প্রটেকশনে মাইক্রোযোগে খেলার মাঠ ত্যাগ করে ময়মনসিংহ জেলা স্কুলের সামনে পোঁছামাত্র সংঘবদ্ধ স্কুলের ছাত্ররা অতর্কিত মাইক্রোবাসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে ।এসময় মাইক্রোবাসের ভেতরে থাকা বেশ ক’জন আহত হন ।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জিলা স্কুলের ১০ শ্রেণীর ছাত্র অর্নব এবং ৯ম শ্রেণীর ছাত্র ঐ টিমের খেলোয়ার আসিফকে গ্রেফতার করে হাজতে আটক রাখে । খেলার দর্শকদের অভিযোগ ,মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষার উপপরিচালক একেএম ফজলুল হক খেলার উদ্বোধন করে মাত্র ১০ মিনিট মাঠে অবস্থান নেন । এরপর তড়িঘরি করে স্টেজ ত্যাগ করেন ।জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক ইউসুফ ফারুকী স্টেজে থাকেন মাত্র ২৫ মিনিট । তিনিও স্টেজ ত্যাগ করেন । গোবিন্দপুর মুকসদপুর মো: আব্দুল হাই মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ এর ক্রীড়া শিক্ষক কামাল উদ্দিন ও সবুজ মুন্সী জানান , জিলা স্কুলের ছাত্ররা যে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করেছে তা ইতিহাসের কংলকিংত অধ্যায় ।ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি ফজলুল করীম জানান , এ ঘটনায় জিলা স্কুলের শিক্ষকরা দায় এড়াতে পারেন না ।