ক্যাটেগরিঃ জনজীবন

vekkha
ময়মনসিংহে ভিক্ষার সার্টিফিকেট । ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলাধীন ১০নং রূপসী ইউনিয়নের বরইকান্দি গ্রামের ৭০ বছর বয়স্ক আব্দুল কুদ্দুছ আজও বয়স্কভাতার কার্ড পাননি! কার্ডের জন্য অনেক পিড়াপিড়ি করলেও তাকে বয়স্কভাতার কার্ড না দিয়ে ভিক্ষাবৃত্তির প্রত্যয়ণপত্র তথা সার্টিফিকেট হাতে তুলে দিয়েছেন চেয়ারম্যান শাকিল আহম্মেদ দীপু। প্রশ্ন ওঠেছে আর কত বয়স হলে, বয়স্কভাতার কার্ড পাবেন আব্দুল কুদ্দুছ ?
চেয়ারম্যান দীপু স্বাক্ষরিত এক প্রত্যয়ণপত্র হাতে নিয়ে ৭০ বছরের বৃদ্ধ আব্দুল কুদ্দুছ বেশকিছুদিন ধরে ফুলপুর বাসস্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন এলাকায় ভিক্ষাবৃত্তি পেশা চালিয়ে যাচ্ছেন। আব্দুল কুদ্দুছের সাথে কথা হলে তিনি জানান, একটি বয়স্কভাতার কার্ডের জন্য তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ স্থানীয় চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছেন কিন্তু কোন ফল হয়নি। বয়স্কভাতার কার্ডের জন্য চেয়ারম্যান দীপু ও ইউপি মেম্বার তার তাছে ১ হাজার টাকা দাবী করেছেন বলেও আব্দুল কুদ্দুছ অভিযোগ করেন। এ টাকা সংগ্রহ করতে না পারায় ৭০ বছর বয়স হওয়ার পরও তার ভাগ্যে বয়স্কভাতার কার্ড জোটেনি।
আব্দুল কুদ্দুছের পিড়াপিড়িতে অবশেষে ইউপি চেয়ারম্যান দীপু তার পরিষদের প্যাডে নগরে নগরে সাহায্য চাওয়ার জন্য একটি প্রত্যয়ণপত্র লিখে দিয়ে আব্দুল কুদ্দুছকে বিদায় করেন। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান দীপুর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আব্দুল কুদ্দুছ বয়স্কভাতার কার্ড পেয়েছেন কিনা বলতে পারলাম না, তবে আমি কার্ডের জন্য কারো কাছে কোন টাকা চাওয়ার প্রশ্নই আসে না।
উল্লেখ্য, বৃদ্ধ আব্দুল কুদ্দুছের বাড়ি ভিটা ছাড়া আর কোন জমাজমি নেই। তিনি ২ ছেলে ও ৪ মেয়ের জনক। আর্থিক সংকট ও নানা রোগশোকের কারণে বর্তমানে তিনি মানবেতর জীবনযাপন করছেন।