ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

Segrigationময়মনসিংহের আবহাওয়া সেগ্রিগেশন। প্রকৃতিতে অনেক সময় প্রজাতিকূলে অদ্ভুত আকারের ও বর্ণের আবির্ভাব ঘটে। বিজ্ঞানীরা এই ধরনের পরিবর্তনের কারণ হিসাবে প্রজাতির জেনেটিক্যাল বৈশিষ্ট্য সেগ্রিগেশন (Segrigation) বা জ্বীনের ব্যতিক্রমধর্মী আচরণকে ফেনোটাইপ (Phenotype) দায়ী করেন । সাধারণত গবেষণাগারে কৃত্রিম উপায়ে উদ্ভাবিত ধান বা শষ্যাদিতে এ ধরণের সেগ্রিগেশন হরহামেশা দেখা যায়। কিন্তু প্রকৃতিতে এ ধরনের সেগ্রিগেশন খুবই বিরল।

এ ধরনের এক বিরল উদ্ভিদের সন্ধান পাওয়া গেছে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার দাওগাঁও ইউনিয়নের গোধাপাড়াস্থ সিদ্দিকের বাড়ির আঙ্গিণায় । সিদ্দিকের বাড়ির লোকজন এটি সনাক্ত করেন। উদ্ভিদটি দেখতে অনেকটা ফোটা বাঁধাকপির মত । কিন্তু রং পুরোটা সবুজ নয় । নীল, লাল, খয়েরী ও সবুজের সংমিশ্রণে এ দৃষ্টিনন্দন উদ্ভিদটি সবার মাঝে কৌতুহল সৃষ্টি করেছে। এটি উদ্ভিদ না উদ্ভিদপুষ্প তা উদ্ভিদ বিজ্ঞানী ছাড়া বলা কঠিন। কারণ পাতা দেখতে অনেকটা পুষ্পদল আকৃতির। উদ্ভিদটি থেকে উত্কট গন্ধ পাওয়া যায় । সেজন্য উদ্ভিদ বা পুষ্পটির উপর অগনিত মাছির আবির্ভাব দেখা যায়। এই অদ্ভুত উদ্ভিদটি এক নজর দেখার জন্য কৌতুহলী জনেরা দূর দূরান্ত থেকে এসে ভিড় করেন।

মুক্তাগাছার প্রকৃতি বিজ্ঞানী মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক জানান, এর প্রায় সদৃশ অর্থাত্ অনেকটা সামঞ্জস্যপূর্ণ এক ধরনের উদ্ভিদ এ অঞ্চলে পাওয়া যায়। উদ্ভিদটির নাম খারমান। বর্ষাকালে এর ফুল ফোঁটে। ফুলের রং তামাটে লাল। এর ফুলেও উত্কট দুর্গন্ধযুক্ত। এর দুর্গন্ধে প্রাণীর বিষ্ঠা এবং পচা মাংসের গন্ধের কম্বিনেশন রয়েছে। তবে উল্লেখিত উদ্ভিদ অথবা ফুলটির সাথে খারমান ফুলের রং ও আকারে রয়েছে বিরাট তফাত্ রয়েছে।

তার মতে, এটি সম্ভবত খারমান উদ্ভিদের সেগ্রিগেটেট রুপ।