ক্যাটেগরিঃ ভ্রমণ

 
parjotan.

ময়মনসিংহে পর্যটন দিবস । আজ শনিবার বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনায় পর্যটন দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন আয়োজিত জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও উন্নয়ন) শারমিন জাহানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন সাহিত্য সংসদের সাধারণ সম্পাদক ইয়াজদানী কোরায়াশী, কবি ও গবেষক অরন্য ইচিরান, মোখলেছুর রহমান, হোটেল-রেস্তোরা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শরীফ। সভাপতির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শারমীন আক্তার বলেন, ময়মনসিংহ জেলায় দর্শনীয় পর্যটন কেন্দ্র আছে। যা অভিভাবকসহ প্রতিটি শিশুদের মনোনিবেশ হওয়া আবশ্যক। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ও দারিদ্র মোচনের জন্য বর্তমান সরকার পর্যটনকে হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছেন। পাশাপাশি শশী লজ, গৌরীপুরের জমিদার বাড়ী, আলেকজান্ডার ক্যাসেল, মুক্তাগাছা জমিদার বাড়ী, রামগোপালপুর পর্যটন কেন্দ্রের ইতিহাস সম্পর্কে শিশুদেরকে সংযুক্ত করতে হবে।

এর আগে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী পর্যটন লীগ ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল্লাহ আল আজাদ (রিমন)। বিশেষ অতিথি হিসেবে হোটেল-রেস্তোরা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শরীফ এক বক্তব্যে বলেন, ইতিমধ্যেই হোটেল-রেস্তোরা পরিবারের পক্ষ থেকে গনসচেতনার লক্ষে ৫০টি হোটেলকে মাদকমুক্ত করা হয়েছে। তিনি হোটেল মালিক সমিতির পক্ষ থেকে ভবিষ্যতে প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। তিনি আরও বলেন, পর্যটন বিষয়ে গণসচেতনতার লক্ষে রেস্তোরা মালিক সমিতি ভবিষ্যতে আরো মনোযোগী হবেন বলে আশ্বাস দেন। এর আগে টাউন হল প্রাঙ্গন থেকে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে হোটেল-রেস্তোরার সৌজন্যে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে জেলা পরিষদে এসে শেষ হয়। র‌্যালী ও আলোচনা অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, সুশীলসমাজসহ বাংলাদেশ আওয়ামী পর্যটন লীগ ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল্লাহ আল আজাদ রিমন, সহ সভাপতি আমির হোসেন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক এস.এম ফারুক সরকার, প্রচার সম্পাদক মোঃ শরিফুল ইসলামসহ সদস্য ও দলীয় নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন, সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ড. উম্মে আফছারী জহুরা। জনসাধারনের মাঝে পর্যটন বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সভায় আহবান জানানো হয় ।