ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে কমিশন গঠনের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনা বর্তমান প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের জন্য একটি যুগান্তারী পদক্ষেপ । এটি বাস্তবায়িত হলে শিক্ষক সমাজ কলঙ্কমুক্ত হবে ঘুষ দুর্নীতি আর কলঙ্কের কবল থেকে । কমিশন গঠন হলে প্রার্থীদের নিয়োগ পেতে আর শ্বরণাপন্ন হতে হবে না এমপি, মন্ত্রী , নেতা , সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্তা ও দালালদের নিকট। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি ঘুষ বাণিজ্য এখন রেওয়াজে পরিণত হয়েছে ।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হতে হলে ৩ থেকে ৫লাখ টাকা পর্যন্ত ঘুষ বাবদ টাকা গুণতে হয় এমন কথা সকলেরই জানা । ঘুষ দুর্নীতির কারণে যেমন প্রকৃত মেধার গুরুত্ব কমে যায় তেমনি এপেশায় নিয়োজিতদের কলংকের কালিমাপাতের বোঝা বইয়ে বেড়াতে হয় সারাজীবন। সভ্য সমাজে এটি কারো কাম্যও নয় । শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড । প্রাথমিক শিক্ষাই জাতি গঠনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে । আর শিক্ষার মান উন্নয়নে প্রাথমিক শিক্ষকদের ভূমিকা অপরিসীম । প্রাথমিক শিক্ষকগণই শিক্ষার বুনিয়াদ রচনা করেন ।

 

তাঁরা শিশু শিক্ষার্থীদের মানস গঠনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন । তাঁদের আদর্শ নাগরিক হিসাবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অবদান রাখেন । তাদের মনে পড়াশোনার ব্যাপারে আগ্রহ ও উদ্দীপনা সৃষ্টি করেন । তাদের মধ্যে দেশ প্রেম জাগিয়ে তুলেন । জীবন -মান উন্নয়নে শিক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরেন । এসকল দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনের জন্য প্রাথমিক শিক্ষকদের যথার্থ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে । শিক্ষকতার পেশাকে মহান পেশা হিসাবে বিবেচনা করে মানুষ গড়ার কারিগর হিসাবে তাঁদের কাজ করতে হবে । মূলত নিজেদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে এবং সততার সাথে পালনের মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষকগণ শিক্ষার মান উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ র্ভমিকা পালন করতে হলে ঘুষ দুর্নীতির কলঙ্ক থেকে নিজের মুক্ত রাখার বিকল্প নেই । প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হোক এই প্রত্যাশা ।