ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

ময়মনসিংহে অপরাধ সংবাদ । অপরাধ সংবাদ একটি অনলাইন পত্রিকা । প্রকাশিত হয় ময়মনসিংহ থেকে । পত্রিকাটির সম্পাদক প্রকাশক রফিক । আমার শিষ্য। অনেকদিন পর আজ সে আমার সাথে দেখা করতে এসেছে । দেখা হতেই রফিল বলল, দাদা আপনার লেখা চাই। এতে আমি কি যে আনন্দিত হয়েছি তা বলে বোঝাতে পারবো না । আমি যখন ময়মনসিংহে সাংবাদিকতা করি। রফিক তখন স্থানীয় একটি পত্রিকার সাংবাদিক । ঐ সময় রফিককে বললাম, রফিক অন্যের পত্রিকায় কাজ না করে নিজেই পত্রিকা খুলুন । এখন অনলাইন পত্রিকার জয় জয়াকার ।

রফিক আমার পরামর্শে চালু করলো অনলাইন অপরাধ সংবাদ । অপরাধ সংবাদ এখন ময়মনসিংহেই নয় । সারাদেশেই এখন এর ব্যাপক প্রচার । আমার অনেক শিষ্যই আজ বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠিত সাংবাদিক ।কিন্তু রফিকের মতো যোগ্য শিষ্য পাইনি আজো । কিছুদিন আগে আমার এক শিষ্য ফোনে বলল, দাদা আমি একটি পত্রিকা প্রকাশ করেছি । নাম দৈনিক নব কল্যান। আপনি আমার গুরু তাই আপনাকে জানালাম । পত্রিকার সম্পাদক নবদ্বীপ সাহার ফোনে খুশী হয়েছি ঠিকই কিন্তু খারাপ লেগেছে । কারণ প্রথম সংখ্যায় সে আমার একটি লেখা চাইলে আরো ভালো লাগতো । এরই মাঝে ঢাকা থেকে ফোন করল আরেক শিষ্য রিয়াজ । রিয়াজ দৈনিক সংবাদ মোহনার নির্বাহী সম্পাদক । বলল, গুরু আমার প্রকাশিত সাপ্তাহিক দুর্নীতি দমন পত্রিকাটি দৈনিক করছি । আমি আনন্দিত হলাম ।কিন্তু লেখা না চাওয়ায় ম্লান হয়ে গেলো আনন্দ ।একজন সাংবাদিকের মূল আনন্দই হচ্ছে প্রকাশিত তার একটি লেখা ।যা তার প্রাণ । অনেক সম্পাদক আছেন , যারা সাংবাদিকদের লেখার চাইতে বেশী গুরুত্ব দেন বিজ্ঞাপন ও আউটসোসিং । ঐ সম্পাদকরা ভাবেন । এগুলিই তাদের প্রাণ । আমি বলি, এগুলির প্রয়োজন আছে । তবে লেখার চাইতে বেশী নয়।রফিকের উৎসাহে প্রায় ছেড়ে দেয়া সাংবাদিকতার নেশা আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে ।ইচ্ছে করছে আবার লেখালেখি শুরু করি ।অনেক শিষ্যই তো আজ সাংবাদিকতায় প্রতিষ্ঠিত । কিন্তু ওর মতো যোগ্য শিষ্যের আজ বড়ো অভাব ।