ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

hk

সমান সংখ্যক গ্লাস নিয়ে এসেছিলাম । এখন দেখি খালেদা জিয়া মার্কার ডিমান্ড নেই । ডিমান্ড বেশি শেখ হাসিনা মার্কার । জানি যে, এই উপজেলায় বিএনপি আওয়ামী লীগ দু ’দলেরই এমপি নির্বাচিত হয়েছেন । তাই ভেবেছিলাম সমর্থকও সমান সমান হবে। তাই সমান সংখ্যক গ্লাস নিয়ে এসেছিলাম মেলায় । এখন দেখি চিত্র ভিন্ন । খালেদা মার্কা প্রায় সব গ্লাস অবিক্রিত রয়ে গেছে । কথাগুলো বললেন, মুক্তাগাছা শহরের একটি মেলায় আসা বাসন বিক্রেতা । বিক্রেতা জানান, আমার দোকানের সকল পণ্যের দামই ১শ’ ৩০ টাকা । খালেদা মার্কা গ্লাস অবিক্রিত থাকায় লোকসান গুণতে হচ্ছে । কম দামে বিক্রি করতে চাইলেও ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ক্রেতা জানান, আমি খালেদা জিয়ার ভক্ত । খালেদা জিয়া মার্কা গ্লাস পছন্দ হলেও কিনিনি । ভেবেছি এটি কিনে নিয়ে বাড়ি যাওয়ার সময় পুলিশী ঝামেলা পোহাতে হবে । টাকায় কেনা জিনিস লুকিয়ে নিতেও রাজি নই আমি । তাই কিনিনি।

হাসিনা মার্কা একজন গ্লাস ক্রেতা জানান, এটা হাতে থাকলে সকল বালা মছিবত দূরে থাকবে এটা আমার বিশ্বাস । তাছাড়া শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী । সরকার প্রধানের ছবি যার বাড়িতে থাকে আমার বিশ্বাস সেই পরিবারে ঈশ্বর কৃপা বর্ষণ করেন।