ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

ময়মনসিংহ বার্তা ময়মনসিংহে আমার পত্রিকা ৪ বছরে।একটি পত্রিকার শুভজন্মদিন মানেই উৎসবের আমেজ। কেক কাটা, আনন্দ র‌্যালি, কথামালা ইত্যাকার আয়োজনে বহুমাত্রিক আনুষ্ঠানিকতা কাজ করে এ দিনকে ঘিরে।

বিগত দিনের ভুল শুধরে নবউদ্যমে এগিয়ে চলাও জন্মদিনের প্রত্যয়। এগুলির কোন কিছুই আমি আজো করতে পারিনি । স্বীকার করছি এটা আমার ব্যর্থতা । উৎসব ছাড়াই সবার প্রিয়

ময়মনসিংহ বার্তা প্রকাশনার ৩ বৎসর অতিক্রম করে ৪ বছরে পদার্পন করলো।

আমি মনে করি এবারের পথ চলায় নিঃসন্দেহে আরও নতুন মাত্রা যুক্ত হবে এমন প্রত্যাশা প্রতিটি পাঠক হৃদয়ে। ময়মনসিংহ বার্তা সাথে পাঠকের হৃদয়ের বন্ধন বহুদিনের। এ বন্ধন তরতাজা রাখতে ময়মনসিংহ বার্তা প্রতিদিন পাঠকের কাছে নতুন স্বাদ নিয়ে। সম্পাদক হিসাবে পাঠকদের সাথে আমার হৃদ্যতা ও সখ্যতা অনেক দিনের। একজন সাংবাদিক থেকে সম্পাদক হওয়া খুবই চ্যালেঞ্জের কাজ ।

তারপরও বহমান ব্রহ্মপুত্র নদ প্রবাহিত ময়মনসিংহ অঞ্চলের মানুষের সাথে ময়মনসিংহ বার্তা এগিয়ে চলছে এটাও কমবড় পাওনা নয় আমার । ময়মনসিংহ বার্তা প্রিয়তা অর্জন করেছে নিজ গুণে ও মানে।আমার জন্য নয় । এক দূর্লভ অর্জনের মাধ্যমে ময়মনসিংহ বার্তা আজ ৪ বছরে পা রেখেছে। সময়ের চাহিদার প্রেক্ষিতে ময়মনসিংহ বার্তা , বৃহত্তর ময়মনসিংহ তথা বাংলাদেশ এবং পৃথিবীর বুকে মানুষের প্রিয় পত্রিকা হিসেবে নিজের মহিমা সর্বত্র ছড়িয়েছে। নিবেদিতপ্রাণ একঝাক সংবাদ কর্মীর একাগ্রতা ও কর্তব্যনিষ্ঠা ময়মনসিংহ বার্তা পত্রিকার সাফল্যে বড় ভূমিকা রাখছে। সংবাদ পরিবেশনে বস্তুনিষ্ঠতা ও নিরপেক্ষতা এ পত্রিকার প্রতিটি পাঠক হৃদয়কে আকৃষ্ট করেছে। স্থানীয় সংবাদ ও নানা সমস্যা ময়মনসিংহ বার্তাতে উঠে আসে অতি গুরুত্বের সাথে। আমি চেষ্টা করি মূলতঃ পাঠক চাহিদার প্রতিটি বিষয়ে খেয়াল রেখে ময়মনসিংহ বার্তা প্রকাশনার মান বজায় রেখেছে।

এ ক্ষেত্রে আমার সহযোগীরা সর্বজন গ্রহণযোগ্য মননশীলতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছেন । ময়মনসিংহ বার্তায় সমসাময়িক বিষয়ে লিখতে সচেষ্ঠ হয়েছি। এতে আমারও নিজস্ব সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটেছে। জ্ঞানের পরিধিও বিস্তৃত হয়েছে। দৃষ্টিভঙ্গীর সংকীর্ণতা কেটে গেছে। মূলত একজন মুক্তচিন্তার মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়টি আমার নিকট আরও বেশি বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়েছে পাঠকের সাড়া পেয়ে। অনেক পাঠক নিজেই ইমেইল ও ফোনে সংবাদ পরিবেশন করেছেন । ময়মনসিংহ বার্তার দূর্বলতা ও সবলতা নিয়ে মন্তব্য করেছেন। অনেকে উৎসাহ দিয়েছেন। অনেক পাঠক সাহস ও শক্তি যুগিয়েছেন আমার চেতনা ও চিন্তাকে শক্তিশালী করতে।

ময়মনসিংহ বার্তা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অন্যতম ধারক ও বাহক। তাই দেশের স্বার্থ সবার উপরে স্থান দিয়ে অসংখ্য পাঠক হৃদয়ে নাড়া দিতে পারছি এটাই আমার বড় পাওয়া । ময়মনসিংহ বার্তা এর পক্ষ থেকে সকলকে গত দিনগুলোর মতো এখনও পাশে থাকার আহবান জানাই । সকলকে ধন্যবাদ ।