ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

11_Washiqur+Rahman_Muderer_300315_0002

পুলিশ জনতা। জনতাই পুলিশ । শ্লোগানটির যথার্থতা পেলাম গতকাল সোমবার । ব্লগার ওয়াশিকুর রহমানকে খুন করে পালানোর সময় স্থানীয় জনতা দুই খুনীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন ।

খবরে প্রকাশ, এই প্রথম কোন ব্লগার খুনী ধরা পড়লো । আমরা কারণে অকারণে পুলিশকে দোষারোপ করি । আমরা যদি পুলিশকে দোষারোপ না করে পুলিশকে সহযোগীতায় এগিয়ে আসি, তাহলে আমার মনে হয় অপরাধ প্রবনতা অনেকাংশে কমে আসবে । পুলিশকে আমাদের বন্ধু ভাবতে হবে ।

গতকালের ঘটনায় জনতা হত্যাকারীদের যদি আটক না করতো, তাহলে কী হতো? হত্যাকারীরা পালিয়ে যেত। পুলিশ ঘটনাস্থলে খুনীদের চিহ্নিত করতে সাহায্য চাইতো জনতার কাছে । জনতা পুলিশকে খুনীদের ব্যাপারে কোন তথ্য না দিলে আমরা আবারো পুলিশকে দোষারোপ করতাম । পুলিশকে দোষারোপ করাতে পুলিশ কিছুটা হলেও তাদের কাজে প্রতিবন্ধকতার সন্মুখীন হতেন । অনেকেই ভাবতে পারেন আমার এই লেখা পুলিশের হয়ে দালালি বা চাটুকারিতা । আর এটা ভাবাও অযৌক্তিক নয় ।

কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে পুলিশী হয়রানিই শিকার আমিও হয়েছি। এর জন্য পুলিশকে দোষারোপও করেছি । কিন্তু পরে ভেবে দেখেছি আমাকে হয়রানির জন্য দায়ী পুলিশ নয় । জনতা। পুলিশের পোষাক-পরিচ্ছেদ একই রকম । কিন্তু আমরা যারা জনতা আমাদের পোষাকে ভিন্নতা রয়েছে ।

সব জনতা তো আর এক রকম নন । ব্লগারকে খুন করার সময় সব জনতা খুনীকে আটক করতে এগিয়ে আসেননি । যারা আসেননি তারাও কিন্তু জনতা । আমাকে পুলিশ হয়রানি করেছে যাদের কারণে তারাও কিন্তু জনতা । আমরা পুলিশকে দোষারোপ করি ।

পুলিশের কোন পক্ষ বিপক্ষ নেই । আমাদের জনতার মাঝে আছে । যেমন, ধরুন আপনি প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে কোন অভিযোগ করলেন , পুলিশ আপনার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করলেন । আপনার অভিযোগটি আপনার পক্ষে না আসলেই আপনি শুরু করবেন তদন্তকারী সেই পুলিশ বা পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিষদাগার বা দোষারোপ । এভাবেই শুরু হয় পুলিশের বিরুদ্ধে জনতার অভিযোগ বা ক্ষুব্ধতা । আমাদের উচিত অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সকল জনতাকে এক সারিতে আসা ।

আমাদের জনতার মাঝে বিবোধ থাকলে পুলিশ একটি পক্ষ নেবে এটাই স্বাভাবিক । জানা মতে, পুলিশের ধর্ম আদর্শ ন্যায়ের পক্ষে । অন্যায়ের বিরুদ্ধে । আসুন আজ থেকে আমরা শপথ নেই, খুন, ধর্ষন, রাহাজানি, অগ্নিসংযোগসহ সকল অপরাধ সংঘঠিতকালে আমরা জনতা কারো পক্ষে বিপক্ষে হুমকি ধমকিতে ভীত না হয়ে অপরাধীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই। অপরাধীদের ধরে সোপর্দ করি পুলিশের কাছে।

স্লোগান ধরি পুলিশ জনতা ভাই ভাই , অপরাধী তোমার রক্ষা নাই ।