ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 
Eight-Pahela-Baishakh-haras

বাংলা বর্ষবরণ উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় নারী লাঞ্ছনার ঘটনায় অভিযুক্তদের নিয়ে মিডিয়ায় কম লেখালেখি হয়নি। আজ মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে আটজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এসব যৌন নিপীড়কদের ধরিয়ে দিলে এক লাখ টাকা করে পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছে। তবে আর দেরি কেন? আসুন সবাই নেমে পড়ি নারী লাঞ্ছনাকারীদের সন্ধানে । শ্লোগান দেই পুলিশ জনতা ভাই ভাই অপরাধী তোমার রক্ষা নাই ।

টেলিভিশন আর অনলাইনে দেখা হলো আজ রবিবার সকালে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক পুরস্কার ঘোষনা করছেন । খবরে প্রকাশ, পুলিশ সদর দফতরের কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, গণমাধ্যমে বর্ষবরণে নারী লাঞ্ছনাকারীদের প্রকাশিত ছবি ছিল ঝাঁপসা। এই কারণে তাদের শনাক্ত ও গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ভিডিও দেখে পুলিশ এই আটজনকে শনাক্ত করেছে। আজকের মধ্যে দেশের গণমাধ্যমে এই আটজনের স্পষ্ট ছবি দেওয়া হবে। কেউ তাদের পরিচয় শনাক্ত করতে পারলে এক লাখ টাকা করে পুরস্কার দেওয়া হবে এবং চাইলে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হবে।

১৪ এপ্রিল পয়লা বৈশাখের উৎসবের সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ফটকে ভিড়ের মধ্যে এক দল যুবক নারীদের ওপর চড়াও হয়। তাতে বাধা দিতে গিয়ে আহত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লিটন নন্দীসহ কয়েকজন। এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত ও ভিডিও প্রচার হলে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি হয়। ওই ঘটনায় পুলিশ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়লেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

অনেক প্রতিবাদী লেখক এ ঘটনায় পুলিশকে দোষারোপ করে লেখালেখি করেছেন । আজ পুলিশের বক্তব্যে প্রমাণ হয়েছে পুলিশও চায় এই সমস্ত জঘন্য অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনতে ।

আসুন সবাই প্রকাশ্যে নেমে পড়ি. এই অপরাধীদের আটক করে পুলিশে সোপর্দ করি । প্রমাণ করি আমরা পিছিয়ে নেই ।তাছাড়া পুরস্কারতো আছেই । অপরাধী সনাক্ত করতে পারলে অথবা তাদের ধরতে পারলেই লাখ টাকা । সুযোগ হাতছাড়া যাতে না হয়. সেজন্য সকলেই সজাগ থাকবেন এই আহবান রইলো ।