ক্যাটেগরিঃ ইতিহাস-ঐতিহ্য

 

ময়মনসিংহে ঈশ্বরগঞ্জের আদি নাম ছিলো পিতলগঞ্জ । এই পিতলগঞ্জে ছিলো এক খেয়ামাঝি । নাম ছিলো তার ঈশ্বরপাটনী ।
18-1
ব্রীটিশ আমলে ইংরেজরা নির্যাতন করতো প্রজাদের । বাদ যাননি ঈশ্বরপাটনীও । এই তিনি গড়ে তোলেন ইংরেজ বিরোধী আন্দোলন ।এক ইংরেজ সাহেবকে হত্যা করেন তিনি । পরে তিনিও প্রাণ হারান । গৌরীপুরের তৎকালীন এক জরিমদার ঈশ্বরপাটনীর নামের ঈশ্বরের সঙ্গে গঞ্জ যোগ করে এলাকার নামকরণ করেন ঈশ্বরগঞ্জ।
18-2

ময়মনসিংহ শহর থেকে ৩৫ কিলোমিটার দূরবর্তী ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়িতে প্রতিষ্ঠিত মনকাড়া প্রত্নতত্ব নিদর্শন এক প্রাচীন বাড়ি যেটি আঠার বাড়ি জমিদার বাড়ি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত ।
18-3
ইতিহাস থেকে জানা যায়, ১৯৪৭ সালে দেশভাগ এবং ১৯৫১ সালে জমিদারি প্রথা বিলুপ্ত হলে, বাড়ির মালিক জমিদার প্রমোদ রায় চৌধুরী পরিবার-পরিজননিয়ে ভারত চলে যান। এরপর ১৯৬৮ সালে জমিদারবাড়ির আঙিনায় স্থাপিত হয় আঠারবাড়ি ডিগ্রি কলেজ।
18-4

এই জমিদারদের পূর্বপূরুষ জমিদার দীপ রায় চৌধুরী পরিবারের দেখভালের জন্য যশোর থেকে আঠারটি হিন্দু পরিবার তাদের এখানে আনেন । এরই ধারাবাহিকতায় এলাকাটির নামকরণ হয় আঠারবাড়ি ।

জমিদার প্রমোদচন্দ্র রায় চৌধুরীর আমন্ত্রণে ১৯২৬ সনের ১৯ ফেবৃুয়ারি এই আঠাবাড়ি জমিদার বাড়িতে এসেছিলেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর । পুত্র রথীন্দ্রনাথ, পুত্রবধূ প্রতিমা দেবী, দীনেন্দ্রনাথ ঠাকুর, ইতালির অধ্য জোসেফ তুচিও ছিলেন কবীর সফরসঙ্গী ।
18-last
আঠারবাড়ি জমিদারদের অনেক মূল্যবান ঘর, মন্দিরসহ অনেক স্থপনা আজ ধ্বংসের পথে। এলাকবাসী এগুলির যথাযথ সংস্কার ও সংরক্ষণের দাবী জানান ।