ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

গত ২৩ মার্চ সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে হয়ে গেল Young Biotechnologist of Bangladesh 3rd national congress, সম্মেলন উপলক্ষে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস বর্ণীল সাজে সাজানো হয় ।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের Genetic Engineering & Biotechnology বিভাগ এবং Young Biotechnologist of Bangladesh (সংক্ষেপে YBB) যৌথভাবে এবারের congress এর আয়োজন করে ।

এবারের congress এর theme ছিল Business Biotechnology and Career Options

এবারের congress এর coordinator আবুল মাহীন সজীব ও YBB গ্রুপ এর Convener ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের GEB বিভাগের প্রভাষক মোস্তাক-ইবন-আয়ুব এর উদ্বোধনী ভাষনের মধ্য দিয়ে সম্মেলন শুরু হয়।

সম্মেলনে Jagannath university, Dhaka university, Mawlana Vasani Science & Technology University, Brac university, Shahjalal University of Science & Technology, Eastwest university, Chittagong University, Khulna University সহ দেশের বেশ কিছু সরকারী-বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষনা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫০০ শিক্ষক,শিক্ষার্থীরা ও গবেষক অংশগ্রহন করেন ।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড.সালেহ উদ্দীন এর সভাপতিত্বে আয়োজিত এবারের সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিল্পমন্ত্রী জনাব দিলীপ বড়ুয়া। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড.ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস।

সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের GEB বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড.আবুল কালাম আজাদ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইফ সায়েন্স অনুষদের ডীন প্রফেসর ড.ইয়াসমিন হক, সি.এস.ই অনুষদের ডীন ও জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব প্রফেসর ড.মুহাম্মদ জাফর ইকবাল ।

দেশের খ্যাতিমান বিজ্ঞানী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের অধ্যাপক ড.হাসিনা খান ও ড.জেবা ইসলাম সিরাজের উপস্থিতি অনুষ্ঠান কে যেন আরো প্রাণবন্ত করে তোলে।
সম্মেলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ও YBB গ্রুপ এর উপদেষ্টা ড.আহমদ শামসুল ইসলাম কে বিশেষ সম্মাননা পদক দেয়া হয় ।

অনুষ্ঠানের শেষভাগে ছিল বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও গবেষকদের সায়েন্টিফিক প্রেজেন্টেশন, পোস্টার প্রেজেন্টেশন ।

সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণীর মধ্য দিয়ে এবারের সম্মেলন শেষ হয় ।

অনুষ্ঠানে আগত দেশের বিভিন্ন প্রান্তের শিক্ষার্থীরা এবারের সম্মেলন থেকে Biotechnology ‘র career opportunity উপর বিস্তৃত ধারনা লাভ করেন । এ প্রসঙ্গে কথা হলো জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী হাসিবুর রহমানের সাথে। তার মতে “এরকম একটি সম্মেলন আমরা যারা এই বিষয়ে পড়াশুনা করি তাদের জন্য অনেক বেশী উপকারী এবং অনুপ্রেরণাদায়ক।”

তাই সারা দিনের ব্যস্ততা শেষে যাদের জন্য এ আয়োজন সেসব “তরুন বিজ্ঞনীরা” যখন যে যার গন্তব্যে ফিরছিলো তখন তাদের চোখেমুখে ছিলো ক্লান্তির বদলে উজ্জ্বল এক আভা, যা জানান দেয় এই তরুন বিজ্ঞানীদের হাত ধরেই আগামীর সোনালীদিন গুলো বয়ে আসবে বাংলাদেশ তথা গোটা পৃথিবীর বুকে।
যেই পৃথিবীতে থাকবেনা কোন খাদ্য ঘাটতি, অর্ধাহার-অনাহার কি জিনিষ পৃথিবীর মানুষ তা জানবেনা।
সাধারন রোগব্যধি তো নয়ই, বরং দূরারোগ্য ব্যধিতেও আর ঝরে পরবেনা আর একটিও তাজা প্রান ।
সেদিন কি আর খুব বেশী দূরে, গোটা পৃথিবী যেন উন্মুখ হয়ে তাকিয়ে আছে এইসব তরুন বিজ্ঞানীদের দিকে । আর আমাদের এই তরুন বিজ্ঞানীরা অবশ্য ই সেটা করবে, করতেই হবে … যে কোন মূল্যে ।