ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

ঘটনাবহুল যৌথ বাহিনীর অভিযানের কবলে একটি রাত ও একটি আহ্বান

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে আমরা জানি, বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা অথবা যৌথ বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালাচ্ছেন যা প্রতিনিয়তই টেলিভিশন বা অন্যান্য মিডিয়াতে আমরা দেখতে পাই। কিন্তু যৌথ বাহিনীর কাছে আমার অনুরোধ, আপনারা আমাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গিয়ে আমাদের হয়রানি করবেন না। প্লিজ।

নাশকতাকারী, তালিকা ভুক্ত আসামী ধরতে এসে সাধারন জনগনকে আতংকে রাখবে না। যেমন গতকাল রাতে যে ঘটনাটা আমার নিজ বাসায় হল এতে আমরা হয়রানির স্বীকার হলাম। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থীদের নিয়ে থাকছি ‍বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন একটি ভাড়া বাসায়। আপনারা যৌথ বাহিনী এসে অভিযান চালালেন এবং আপনাদের নিজেদের তথ্য বিভ্রাটের জন্য একটি পরিস্থিতির তৈরী হল। গতকাল অভিযানের তিনটি কথা বলছি :

১. সময়টা গত রাত সোয়া বারটা। কম্পিউটারে এসাইনম্যন্ট টাইফ নিয়ে ব্যস্ত আছি। হটাৎ দরজায় খুব জোরে ধাক্কার আওয়াজ শুনতেই দরজা খুলে দেখি পুলিশ, বিজিবিসহ বিভিন্ন বাহিনীর অন্তত ১০/১৫ জন সদস্য দাড়িয়ে আছে। কিছু না বলেই রুমে প্রবেশ করে রুম তল্লাশি করলেন। পরিচয়ও জিজ্ঞাসা করলেন না। পড়ার টেবিল সহ রুমের কয়েকটি তাকে অনেক বই দেখে একজন পুলিশ সদস্য জিজ্ঞাসা করলেন এত বই কেন? উত্তরে বললাম পড়ালেখা শেষের পথে এত বইতো হতেই পারে। এর পর টেবিলের তাকে থাকা পবিত্র কোরআন শরিফটি একজন পুলিশ সদস্য হাতে নিয়ে টেবিলের উপর রেখে অন্য বই দেখছিলেন। আমি উনাকে বললাল এটা কোরআন শরীফ। পরে পুলিশ সদস্য বললেন ওওও আমি বুঝতে পারিনি। একথা শুলে খুবই মর্মাহত হলাম। পরে পরিচয় জিজ্ঞাসা করে স্বাভাবিক ব্যবহার করলেন যা এর আগেই করা উচিৎ ছিল ।

২. একই নামের অন্য ব্যক্তিকে খুজতে এসে এক ছোট ভাইকে উঠিয়ে নিয়ে গেল। এর ঘন্টা খানেকের মধ্যে প্রত্যাশিত ব্যক্তিকে খুজে পেয়ে আবার বাড়িয়ালার কাছে তাকে এসে হস্তান্তর করে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা বলে গেলেন আমাদের ভুল হয়েছে। আমরা অন্য বাসা ও অন্য ব্যক্তিদের খুজতেছিলাম।

৩. বাসার দুই তলা থেকে দেখি বাসার সামনে যৌথ বাহিনীর অন্তত ৭০/৮০ জন সদস্য দাড়িয়ে আছেন। আমাদের বাসা থেকে বের হয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন একটি মেসে গিয়ে অভিযান চালিয়ে কাংখিত ব্যক্তিদের পেলেন এবং যতদূর জানি আটক করেছেন কয়েকজনকে। এর পর যৌথ বাহিননীর সদস্যরা গাড়ী বহর নিয়ে চলে গেলেন।

যৌথ বাহিনীসহ অন্যান্য বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আমার কয়েকটি পরামর্শ ও দাবী :

১. আপনারা আমাদের নিরাপত্তার শেষ আশ্রয়স্থল। আপনাদের কাছে আমরা সাধারন জনগন হয়রানি হতে চাই না। চাই নিরাপত্তা।

২. সঠিক সংবাদ সংগ্রহ করে নাশকতাকারী অথবা যারা বিভিন্ন অপরাধের সাথে যুক্ত তাদের শাস্তি বিধান করুন।

৩. আপনারা আমাদের পরম বন্ধু। আপনাদের কাছ থেকে আমার সোহার্ধপূর্ণ আচরন আশা করছি।

৪. অাপনাদের উদ্দোগকে স্বাগত জানাই এবং এর যথাযথ ব্যবহারের দাবী জানাচ্ছি।