ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

অবশেষে মাত্র খবর পাওয়া গেল সৌদি আরবে ধরা পড়ল রাজন হত্যার মূল আসামী কামরুল। দীর্ঘদিন সৌদিতে বসবাসরত ডঃ আরিফুর রহমানের ফেসবুক থেকে নিশ্চিত হওয়া গেল এই তথ্যের। কাল সারাদিন ফেবু, ব্লগ, অনলাইন নিউজে তুলকালাম ছড়িয়েছে রাজনের হত্যার ভিডিও। “আমি মরি যাইরাম, আমাকে কেউ বাচাও রে বাবা”, রাজনের কচিকণ্ঠের এই করুন আর্তি সবাইকে কাঁদিয়েছে। ফেসবুকে ছাড়ার পর মানুষের এতো কোপানলে পড়বে তা ভাবে নি কামরুল। পালিয়ে গিয়েছিল । সৌদি প্রবাসী এই যুবকের আটটি ছবি গতকাল ডঃ আরিফুর রহমানকে দেওয়া হয়েছিল। সেই ছবি ফেবুতে ছড়িয়ে দিয়েছিল, এবং সৌদিতে এই কালপ্রিট কোথায় থাকে তা খুঁজার জন্য আবেদন করেছিল। ফলাফল আজ একটু আগে সৌদিতে ধরা পড়ল কামরুল।

ডঃ আরিফুর রহমান তার ফেসবুকে লিখেছেন “জেদ্দার জামেয়া এলাকাতে পলাতক আসামি কামরুলকে ধরে সৌদি পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়েছে। জেদ্দা দুতাবাস সুত্র খবর নিশ্চিত করেছে। সৌদি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, যেহেতু তার বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই, তাকে দু’একদিনে ডিপোর্ট করা যাবে। বাংলাদেশের পুলিশদের তৈরী থাকতে অনুরোধ জানানো হচ্ছে তাকে ওয়েলকাম করার জন্যে”।

খবরের সত্যতা জানার ব্যাপারে তাঁকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন “Consul General Mojammel Hussain has confirmed the news. His mobile is +966502764627”।

এখন দেখার পালা একটা বাচ্চা ছেলেকে নৃশংস ভাবে হত্যা করা এই খুনির শাস্তি কি দেয় এই সরকার ? রাজনের মতো একেও কি পিটিয়ে মেরে ফেলে ভিডিও করা উচিত! না থাক! আইন নিজের হাতে আমরা তুলব না! আইনের উপর ভরসা রাখি। আইনই বদলে দিবে সমাজ!

শুধু আশ্চর্য হচ্ছি এই ভেবে, বাংলাদেশের মানুষ কি না পারে! এটাই কি বড় প্রমাণ না? আমরা এক সঙ্গে দাঁড়ালে সমস্ত দুর্নীতি বাই বাই হতে বাধ্য।

কামরুল kamrul 1