ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

ক্লাসে বইয়া জাবর কাটতেছি, এক জিপি নম্বর ( 01704802700) থেকে ফোন  এসে বললঃ “জিপি কাস্টমার থেকে হেলাল বলছি“। আমি তো জানি ১২১ জিপি কাস্টমারের নম্বর। মজা নিয়ে বললাম “কইতে থাকেন”।

“হ্যাঁ, ম্যাডাম, আমরা আসন্ন ঈদ উপলক্ষে নতুন জিপি সিমের গ্রাহকদের মধ্যে লটারি করেছি। আপনি এর মধ্যে তৃতীয় হয়েছেন। আপনাকে অভিনন্দন”।

– থ্যাংকস ভাইয়া, অনেক খুশি হইছি শুনে, কিন্তু আর কত ভগিচগি করবেন । হইল তো অনেক। এখন আমারে টাকা দিতে বলবেন তাই তো ?

ফোন ধাম করে রেখে দিল। আমি আপনমনে হাসতেছি।

বছর দুয়েক আগে, আম্মারে ঠিক এই ঠকানি দিছিল। আমি ছিলাম ক্লাসে বুঝিও নাই। আইসে যখন শুনি এই অবস্থা অলরেডি আম্মা বিকাশ করে কিছু টাকা পাঠায় দিছে। তারপরেও থামাইলাম, মা এইগুলা ঠিক না।

তুই বেশী বুঝিস ? ওরা বলছে টিভি আসবে, ফুল নিয়ে আসবে, আমারে ত্রিশ লাখ টাকার চেক তুলে দিবে।

এইগুলা ফাউল। তাইলে টাকা নিচ্ছে ক্যান তোমার কাছ থেকে ?

এইগুলা বুঝবি না, রেজিস্ট্রেশন কস্ট।

আসলেই আমি বুঝি নাই। ভাবলাম কি জানি মিরাকল হইতেও পারে , কে জানে ? আমি ঘুমায় গেছি। বিকালে উঠেও কোন লোকের টিকি নাই। অলরেডি মা আরও একবার বিকাশে টাকা দিয়ে আসছে। মা বিমর্ষ হচ্ছিল। আমার কথা বিশ্বাস করা শুরু করছে কিছুটা ।

কিন্তু সন্ধ্যা সাতটায় লোকে কল দিয়ে আবার কয় “আপনি আমার মায়ের মত, মায়ের সাথে ছেলে কি মিথ্যা বলে। ডঃ ইউনুসও আসবেন দেখা করতে, তাই আজ না কাল সকালে টাকা নিয়ে হাজির হব”। আমি গালানোর জন্য ফোন কাইড়ে নিতে গেলেই আম্মা ঠাস করে মাইরে বসে। ত্রিশ লক্ষ টাকার মাইর । কম না ।

পরদিন সকালে ছেলে আবার টাকা চায়, মা তখন সম্মোহন অনেকটাই কাটায় উঠছে । গালি দিয়ে উঠছে, “শয়তান, ফাজলামি পাইছিস ?” তখন লোক বলে উঠে “আমারে গালান ক্যান, আপনি নিজে কি কম লোভী ? একটা লোভী মহিলা!” মা থম হয়ে যায় !

এরপর জিপি অফিসের ফোন নং নেট থেকে বের করে ফোন দিলাম। মায়ের তখনও বিশ্বাস হচ্ছিল না, মায়ের সঙ্গে এইরকম একটা প্রতারণা হয়ে গেল, মায়ের মত বুদ্ধিমতি একজনের সঙ্গে । জিপির লোক বলল “ আপা এটা একটা চক্র, আমার নিজের খালুই এর শিকার। ট্র্যাক করে পাওয়া যাবে, আপনি জিডি করেন”।

মা জিডি করে নাই। তাঁর বোধ হচ্ছে “আমি লোভ করছিলাম, লোভের ঠ্যালায় আমার দুর্গতি হইছে”।

তোমার মত মানুষ এইটা ধরতে পারল না ক্যান ?

তোর বাবার মাত্রই বাইপাস অপারেশন হইল, টাকার টান অনেক, মাথা কেমন নষ্ট হয়ে গেছিল। ত্রিশ লক্ষ টাকা পাইলে কি দারুণ হইত ! মনে হচ্ছিল কেউ উপর থেকে নাইমে আমারে দিল।

নাইমে কেউ দেয় নি বুঝলা তো। এখন কও, কত টাকা ওই হারামিরে দিছি ? ত্রিশ হাজার, বিশ হাজার, না কত ?

যা ভাগ কমু না ।

আমি আজও জানি না মা আসলে ওই লোককে কত টাকা দিছে, তবে আন্দাজ করি অ্যামাউন্ট কম না!

পুনশ্চঃ যাই হোক লেখাটা ফেবুতে পোস্ট দিয়েছি। হঠাৎ মনে হলে উল্লেখ ফোন নং ফেবুতে সার্চ দিয়ে দেখি। দেখলাম ঠিক একই নম্বর উল্লেখ করে স্ট্যাটাস। সেই একই প্রতারণা । ফেসবুকে সার্চ করে যে দুটি পোস্ট পেলাম, প্রতারণার উল্লেখ সহ, তার স্ক্রিনশট দিচ্ছি এখানে।

screenshot 1 screenshot 2