ক্যাটেগরিঃ চিন্তা-দর্শন

সাতের সাতসতের বললে বোধ হয় খারাপ হত না। তবে সাতকাহনও মন্দ লাগছে না। আর খারাপ লাগবেই বা কেন? সাতের রাজত্ব যে জগতময়! কোথায় নেই সাত? সা রে গা মা পা ধা নি – সাতটি স্বরই তো, না? আইজাক নিউটন বলে দিলেন, রঙধনুর রঙ কিন্তু সাতটি। লুডুর ছক্কার দুই বিপরীত প্রান্তের সংখ্যা যোগ করলে কত হয়? হ্যা, সাত। সপ্তাহ সাত দিনে, আর সপ্তম দিনে এসেই গড বিশ্রামে যান, দুনিয়া বানিয়ে। মহাদেশ যেমন সাতটা, সমুদ্রও নাকি তাই। সপ্তর্ষি দূর আকাশে, যেখানে আসমানও আছে সাতটি।

সাত পাহাড়ের শহর রোম। আবার ইস্তাম্বুলও নাকি তাই। ঢাকার মগবাজারের সাত রাস্তা গুনে দেখেছেন? ব্রিটিশ (গালি) র‌্যাডক্লিফের কলমের খোঁচায় সেভেন সিস্টার্স ইন্ডিয়ার। পৃথিবীর আশ্চর্যের সংখ্যাও সাতের অধিক নয়। ছয় ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। সাত ঋতুর দেশও কিন্তু আছে, অষ্ট্রেলিয়ায় ও আমেরিকার কোন কোন জায়গায়।

জেমস বন্ডের নাম্বার জিরো জিরো সেভেন। জনপ্রিয় কোমল পানীয় যেমন সেভেন আপ। সেভেন ইলেভেন চব্বিশ ঘন্টাই খোলা থাকে উত্তর আমেরিকায়, মানুষের নিত্য প্রয়োজনে। আমেরিকা আন্তর্জাতিক টেলিফোন কলের কান্ট্রিকোড ‘এক’ নিলেও সবচেয়ে চমৎকার কান্ট্রিকোড কিন্তু রাশিয়ার – ঐ ‘সাত’। এক সংখ্যার কান্ট্রিকোড পৃথিবীর আর কোন দেশের নাই। গুরুত্বপূর্ণ কথাকে তাই বলে, সাত কথার এক কথা। কাউকে গালি দিতে হলেও তো ঐ সাত কথা শোনাতে হবে, তাই না?

পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশী পাওয়া যায় হাইড্রোজেন মৌল, এর এটমিক নাম্বার সাত। ভূ-ত্বকে সবচেয়ে বেশী আছে যে খনিজ সেটি কোয়ার্টজ। আশ্চর্য! মোহ’স হার্ডনেস স্কেলে এর অবস্থান সাত। পোটেনশিয়াল অব হাইড্রোজেন বা পিএইচ নাম্বার দিয়ে কোন তরলের অম্লত্ব বা ক্ষারত্ব প্রকাশ করা হয়। পানি হচ্ছে অম্ল-ক্ষারের মাঝামাঝি সবচেয়ে নিরপেক্ষ তরল। বিশুদ্ধ পানির পিএইচ কত? সাত। মাপামাপির জন্য এস আই সিস্টেম তথা মেট্রিক পদ্ধতি বহুল প্রচলিত। আশ্চর্য! এই পরিমাপের বেইজ ইউনিট সাতটি – মিটার, কিলোপ্রাম, সেকেন্ড, অ্যাম্পিয়ার, কেলভিন, মোল, ক্যান্ডেলা।

সাতই হল সর্বনিম্ন সংখ্যা যাকে তিনটি সংখ্যার বর্গের যোগফলে প্রকাশ করা যায় না। ত্রিভুজ আর চতুর্ভুজের বাহু যোগ করলে সাত – পারফেক্ট সংখ্যা! জ্বী, পাইথাগোরাস বলেছেন। লাকি সেভেন!! মানুষের মনে রাখার ক্ষমতা কিন্তু অসীম না। মাইলস ল বলে একজন মানুষ সাধারণত সাতের একটু কম বা বেশী সংখ্যক ঘটনাবলী একসাথে মনে রাখতে পারে। সাতটি গ্রহ-নক্ষত্র খালি চোখে পৃথিবী দেখে পরিস্কার দেখা যায় – চন্দ্র, সূর্য্য, বুধ, মঙ্গল, শুক্র, বৃহস্পতি আর শনি গ্রহ। যোগ ব্যায়ামে শক্তি সাতটি চক্রে আবর্তিত হয়ে মানুষের শারীরিক ও আধ্যাত্মিক অজ্ঞতামুক্তি ঘটায়।

পবিত্র সুরা ফাতিহার আয়াত সাতটি। সাত দোজখের দরজাও সাতটি। পবিত্র কাবা তাওয়াফ সাতবার, হজ্জের সময় আল-সাফা আর আল-মারওয়া পাহাড়ের মধ্যে হাঁটাও সাতবার। কোরবানির গরুর সর্বোচ্চ সাত ভাগ, এর বেশী নয়। মোহম্মদপুরের মসজিদটি সাত গম্ভুজের। সম্প্রতি ট্রাম্প গুনে গুনে সাত দেশের মুসলিমদের নিষিদ্ধ করেছেন। সাত পাকেই নাকি বাঁধা পড়ে। জন্মের পরপরই মহামতি বুদ্ধা উত্তর দিকে ফিরে সাতটি পদক্ষেপ দেন মানব মুক্তির জন্য। কারণ, সাতটি চরম পাপের কথাই বলা আছে – লালসা, অতিভোজন, লোভ, আলস্য, ক্রোধ, দ্বেষ, অহংকার। বাইবেলের ওল্ড আর নিউ, দুই টেস্টামেন্টেই সাতটি আত্মহত্যার কথা বলা আছে। মানুষের সাতবারই নাকি পূনর্জন্ম হবে কোন কোন ধর্ম মতে।

সাত ভাইয়ের পরেই চম্পা আসে। সাত ঘাটের পানি খেয়েই মানুষের বালখিল্য মুক্তি ঘটে। হ্যান্ডবল আর ওয়াটার পোলো সাত জনে খেলে। রোমান সংখ্যা লেখায় মাত্র সাতটি অক্ষর আছে। অকুতোভয় বীরশ্রেষ্ঠও ঐ সাত জন। স্টিভেন কোবে সফল মানুষের সাতটি অভ্যাসের কথা বলেছেন। টি এইচ লরেন্স জ্ঞানের সাতটি স্তম্ভের কথা লিখে গেছেন। তিব্বতে সাত বছর থাকা বইটি হলিউডে মুভি হয়েছে ব্রাড পিটকে নিয়ে।

এত সাত-পাঁচ ভাবার কী আছে? সাত খুন মাফ করে দাও না। আশ্চর্য! তোমাকে ভালোবাসি – এ কথাটিও কেন সাত অক্ষরের হল! হায়! সাত চড়েও যে রা করবার জো নেই আমার। ডাক্তাররা বলেন, সাতদিন এন্টিবায়োটিক খেলে তা কার্যকর হয়, শরীরে ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে রেজিস্ট্যান্স গড়ে উঠে। সাতের সাথে সহবাস আমাদের অনেকদিনের। এন্টিবায়োটিক দিয়ে এর বিরুদ্ধে রেজিস্ট্যান্স গড়া যাবে না।