ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

১।কমিউনিস্ট পার্টি (মণি সিং):মুজিবনগর সরকারের সমর্থক।

২।ন্যাপ (মুজাফফর):মুজিবনগর সরকারের সমর্থক।

৩।ছাত্র ইউনিয়ন (মতিয়া চৌধুরী):মুজিবনগর সরকারের সমর্থক

৪।পূর্ব পাকিস্থান কমিউনিস্ট পার্টি (এম এল- তোয়াহ):বাংলাদেশের মাটিতে থেকে যুদ্ধ ভারতের সাহায্যে নয়।

৫।স্রমিক আন্দোলন (সিরাজ শিকদার):পাকিস্থানি সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ কিন্ত কিন্ত ‘ভারতীয় দালাল মুক্তিযোদ্ধাদের” বিরুদ্ধে লড়াই।

৬।পূর্ব পাকিস্থান কমিউনিস্ট পার্টি (এম এল- আবদুল হক):মুক্তিযুদ্ধের নামে পূর্ব পাকিস্থানে ভারতীয় আগ্রাসন অতএব মুক্তিবাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই।

৭।পূর্ব বাংলার কমিউনিস্ট পার্টি (এম এল- মতিন আলাউদ্দীন):চারু মজুমদারের লাইন সঠিক;সুতরাং বিপ্লবের স্তর হবে সমাজতান্ত্রিকা।

৮।কমিউনিস্ট বিপ্লবীদের সমন্বয় কমিটি (জাফর,মেনন,হায়দার,রনো) মাওলানা ভাসানিকে চেয়ারম্যান করে কোলকাতা মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি গঠন এবং মুজিবনগর সরকারের নিকট অস্ত্রের আবেদন।

৯।পূর্ব বাংলার কমিউনিস্ট পার্টি (দেবেন-বাসার-আফতাব):মাওলানা ভাসানিকে চেয়ারম্যান করে কোলকাতা মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি গঠন এবং মুজিবনগর সরকারের নিকট অস্ত্রের আবেদন।

১০।কমিউনিস্ট সংহতি কেন্দ্র (অমল সেন-নজরুল):মাওলানা ভাসানিকে চেয়ারম্যান করে কোলকাতা মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি গঠন এবং মুজিবনগর সরকারের নিকট অস্ত্রের আবেদন।
১১।কমিউনিস্ট কর্মী সংঘ (সাইফুর-মারুফ-দাউদ):মাওলানা ভাসানিকে চেয়ারম্যান করে কোলকাতা মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি গঠন এবং মুজিবনগর সরকারের নিকট অস্ত্রের আবেদন।

১২।বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (হাতিয়ার-নাসিম আলী):মাওলানা ভাসানিকে চেয়ারম্যান করে কোলকাতা মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি গঠন এবং মুজিবনগর সরকারের নিকট অস্ত্রের আবেদন।

১৩।ন্যাপ (ভাসানী):মাওলানা ভাসানিকে চেয়ারম্যান করে কোলকাতা মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি গঠন এবং মুজিবনগর সরকারের নিকট অস্ত্রের আবেদন।

১৪।পূর্ব পাকিস্থান ছাত্র ইউনিয়ন (অচিন্ত্য-দিলীপ):মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সমর্থক।

১৫।পূর্ব বাংলার ছাত্র ইউনিয়ন(মাহাবুবউল্লাহ):মুক্তি সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সমর্থক।

১৬।পূর্ব বাংলা বিপ্লবী ছাত্র ইউনিয়ন(হায়দার খান রনো):পূর্ব বাংলার মাটিতে থেকে মুক্তিযুদ্ধ।

তথ্যসূত্রঃ ‘আমি বিজয় দেখেছি’ এম আর আখতার মুকুল।