ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

কেরানী গঞ্জের মোস্তফা স্যার মারা গেলেন নকল প্রতিরোধের অপরাধে!!! যে কাজটির জন্য এ দুনিয়া থেকে বিদায় নিলেন জাতিকে এ শিক্ষা দিয়ে আবার তোরা মানুষ হ। আমরা পারলাম না মানুষ হতে। শিক্ষার্থীর হাতে শিক্ষক নিহত!!!! হায়রে দেশ হায়রে সমাজ। আমরা কোন সমাজে যে বাস করছি। ইভ টিজিং রক্ষা করতে গিয়ে কলেজের শিক্ষক প্রান দিলেন কিছুদিন আগে। আজ মোস্তফা স্যার গেলেন। শাহবাগ চত্বরের হাজারো প্রতিবাদী কন্ঠের ভীড়ে চাপা পড়েছে স্যারের মৃত্যুর খবর। এমনকি আমাদের নীতিনির্ধারকদের ও সময় হয় নি স্যারের পরিবারের পাশে দাড়ানোর। আমি ও একজন শিক্ষক। আমি মেনে নিতে পারছি না স্যারের এ পরিনতি। আজ ক্লাসে পড়াতে পারি নাই। ভাবছি কি হবে ক্লাস পর ক্লাস করে। মানুষ তো গড়তে পারবো না। কি হবে এ পুঁথিগত বিদ্যা দিয়ে।

রিয়াদ আমাদের সমাজের এক জীবন্ত প্রতিনিধি। তার এ কর্মকান্ড কাচা বয়স আর সুশিক্ষা না পাওয়ার ফল। আমাদের প্রচলিত শিক্ষা পারেনি তার ভিতরে ন্যায় অন্যায় বোধ সৃষ্টি করেত। তাই তো মোস্তফা স্যারের কর্মকান্ড তার কাছে অন্যায় মনে হয়েছ এবং নিজ হাতে সে অন্যায়ের বিচার করেছে। বিয়াদের মত হাজার হাজার রিয়াদ এখন ইভটিজার, মাদকসেবি, অপসংস্কৃতির ধারক। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা তাদেরকে আর আদর্শিক করে তুলতে পারবে না। কারন বড় বড় ডিগ্রী নিয়ে আমরা দেখছি আমাদের শিক্ষক গন অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত, আইনজ্ঞ গন বিক্রিত, ডাক্তার গন আজ কসাই, রাজনীতিবিদরা আজ রাজনীতিজীবী……। কি যে হবে আমাদের ভেবে পাই না ।

রিয়াদকে গ্রেফতার করে সুবিচারের আওতায় আনার দাবি যদি বাস্তবায়ন হয় তবে কি লাভ হবে। আমরা কি পারবো স্যারের দুসন্তানকে পিতার স্নেহ দিতে?
রিয়াদরা আমাদের সমাজের প্রচলিত অপসংস্কৃতি , শিক্ষিত জনদের নির্লিপ্ততা, সামাজিক বন্ধনের অভাব, আইনের শাসনের অভাব, পারিবারিক শাসন ও শিক্ষার অভাব আর আামাদের প্রচলিত লক্ষ্যহীন আদর্শহীন শিক্ষার ফসল। স্যারের মৃত্যু থেকে যদি আমরা শিক্ষা না গ্রহন করি তবে অদূর ভবিষ্যতে আমাদের শিক্ষক গন নীতিহীন কর্মকান্ডে আর বাধা দান করবেন না। জাতির ভবিষ্যৎ অন্ধকারের অতল তলের দিকে যাবে নিশ্চিত।

আসুন আমরা আমাদের সন্তানদেরকে সুস্থ বিনোদন দেই। বিদেশী সংস্কৃতির অনুকরণ থেকে সরিয়ে আনি। তাদের খেলাধুলার ব্যবস্থা করি। সঠিক ধর্মীয় জ্ঞান দেই।
অন্যায়কে প্রশ্রয় না দেই। অপরের সন্তান অন্যায় করলে নিজের সন্তান এর মতো তাকে ন্যায় অন্যায় বুঝিয়ে দেই। সামাজিক বন্ধন ও পারিবারিক বন্ধন বাড়িয়ে তুলি। সন্তানকে বেশী বেশী সময় দেয়ার চেষ্টা করি।

মোস্তফা স্যার আপনি জীবন দিয়ে প্রমাণ করলেন আমরা আজও অশিক্ষিত রয়ে গেছি। আপনি পরপারে চলে গেলেন। আল্লাহ আপনাকে বেহেশতে নসীব করুন। শুনেছি পরপার থেকে পৃথিবীবাসীদের জন্য দোয়া করলে কবুল হয়্ আপনি আমাদের জন্য দোয়া করবেন আমরা যেন আমাদের সন্তানদের স্বশিক্ষায় শিক্ষিত করতে পারি। আমাদের মাফ করবেন স্যার। সালাম সালাম হাজার সালাম আপনার দুটি চরনে ………………

কাদের মোল্লা সহ সকল রাজাকারদের বিচার যে কোন সরকারের সদিচ্ছা থাকলেই আজ হওয়া সম্ভাব। কিন্তু দেশে যে চলমান দূর্নীতি আর নৈতিক অবক্ষয় চলছে তার জন্য প্রয়োজন শাহবাগ চত্বরের মতো গন প্রতিবাদ এবং দুর্বার প্রতিরোধ। শাহবাগ চত্বরের নতুনেরা তোমরা জাতিকে এই অবক্ষয় এর হাত থেকে রক্ষা করার শপথ নেও। যেখানে দূর্নীতি সেখানে প্রতিরোধ গড়ে তোল।