ক্যাটেগরিঃ দিবস প্রসঙ্গ

 

2018

কেউ বলে মানুষ স্বপ্নের সমান বড়, কারো মতে স্বপ্নের চেয়ে ছোট; আবার কেউ বলে মানুষ ব্যর্থতার সমান বড়; কারণ, শেষ স্বপ্নটা কখনও পূরণ হয়না। শেষের কথাটাই অনেক ভাল লেগেছে। কারণ, স্বপ্ন তো মরীচিকা, যাকে ছোঁয়া যায় না, সে সব সময় নাগালের বাইরে থাকে। একটা স্বপ্ন পূরণ হলে হয়তো আরেকটা স্বপ্ন দেখা দেয়। তাই স্বপ্ন পূরণের নিরন্তন প্রচেষ্টাই মানুষকে বড় কিংবা স্বার্থক করে তোলে।

আমরা প্রতিনিয়ত স্বপ্ন দেখে থাকি আর পূরণের জন্য চেষ্টাও করে থাকি। আমাদের কতগুলো স্বপ্ন এরকম হতে পারে- যেমন, আমরা আজ থেকে মিথ্যা বলব না, ডাস্টবিন ছাড়া ময়লা-আবর্জনা ফেলবনা, না জেনে কোন বিষয় মন্তব্য করবনা। যেমন ধরেন, রাজনীতি কিংবা ধর্ম দুই ক্ষেত্রেই না জেনে অনেকেই মন্তব্য করে ফেলি যার দ্বারা আমরা নিজেকে ঠকাই, সমাজকেও ঠকাই। নিজের ধর্মের প্রশাংশা করলেও অন্য ধর্মের বিষয় তুচ্ছ্য-তাচ্ছিল্য করা থেকে বিরত থাকব। অর্থনৈতিক মুক্তি নিয়ে আসব কর্ম আর দানের দ্বারা। ভিক্ষাকে ঘৃণা করব, কাজকে সম্মান করব। বাক্তিত্ব গড়ে তুলব আর সম্মানের সাথে বাঁচার চেষ্টা করব, তবে অহংকারকে মাটিচাপা দিব। দম্ভ কিংবা অহংকার মানুষকে নিঃশেষ করে ফেলে।

ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র স্বপ্নই মানুষকে বড় করে তোলে। বিপরীতদিকে দুঃস্বপ্ন মানুষকে ধ্বংস করে ফেলে। ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য সবার আগে প্রয়োজন আচরণের পরিবর্তন। আচরণের পরিবর্তনের মাধ্যমেই ২০১৮ হোক স্বপ্ন পূরণের বছর।

মোঃ মশিউর রহমান, ব্যাংকার।