ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

সত্যি কথা বলতে এ দেশে কোন সরকারই জনগণের মতামতের তোয়াক্কা করেন না। এমনকি মতামত নেয়ারও প্রয়োজনবোধ করেন না। দলীয় স্বার্থে তারা (প্রত্যেক দলের শীর্ষস্থানীয় নেতারা) সিদ্ধান্ত নেন, আর পরবর্তীতে তার দায় ভোগ করে জনগণ। কোন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করার পূর্বে কেউ ভাবেনা এ দেশের জনগণ কি চায়, তাদের মতামতটা আসলে কি।

সব দলের কাছে একটা প্রশ্ন, এ দেশের জনগণ কি পাঁচ বছর পর পর শুধুই একটি ভোটের জন্য, এছাড়া তাদের মতামত দেয়ার কি কোন অধিকার বা প্রয়োজনীয়তা নেই? সাধারণ মানুষের কথা, দুঃখ-কষ্ট, ক্ষোভ-যন্ত্রনা, চাহিদা, মতামত তো শীর্ষস্থানীয় নেতা-নেত্রীদের কান পর্যন্ত পৌঁছায় না। সাধারণ মানুষের এসব আলোচনা শোনা যায় সন্ধ্যার পর গ্রাম্য হাট-বাজারের চায়ের টেবিলে। কেননা তাদের মতামত দেয়ার মতো এছাড়া বিকল্প কোন মাধ্যম নেই।

দেশের সকল নেতা-নেত্রীরা মুখে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা বলেন। কিন্তু সত্যিকারার্থে তারা গণতন্ত্র চান কিনা এ নিয়ে সন্ধেহ বিদ্যমান। সাধারণ মানুষের মতে, স্বাধীনতার ৪০ বছর পরেও এদেশে এখনও সরকারতন্ত্রই চলছে। কেননা যে দল যখন ক্ষমতায় যায় তখন সেই দল তাদের ইচ্ছেমত এককভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন, যেটা ঠিক নয়। সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাইলে জনগণের স্বার্থে সরকারি সকল সিদ্ধান্তে এ দেশের প্রত্যেকটি মানুষের মতামত গ্রহণ করা জরুরী।

তাই সরকারের উচিৎ কোন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের পূর্বে এ দেশের ষোল কোটি মানুষের মতামত জেনে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করা। শুধু দলীয় সংলাপে সাধারণ মানুষের মন ভরে না। এদেশে অনেক মানুষ আছে যারা কোন দল করেন না, তারা সাধারণ মানুষ। আর এজন্য সরকারের উচিৎ একটি উন্মুক্ত ওয়েবসাইট খোলা। যে সাইটে সরকারের প্রত্যেকটি বিষয়ে সর্বস্তরের জনগণ উন্মুক্ত মতামত প্রকাশ করেতে পারবে। সরকার যখন কোন নীতি নির্ধারণ করতে যাবে, তার ওপর এ দেশের সর্বস্তরের মানুষ পক্ষে-বিপক্ষে মতামত প্রদান করবে। আবার প্রত্যেকের মতামত উন্মুক্ত থাকবে, অর্থাৎ সকলের মন্তব্য যেন সকলেই দেখতে পারে। এভাবে প্রত্যেকটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার পূর্বে জনগণ কর্তৃক জরিপ করা উচিৎ এবং জনগণ কর্তৃক সর্বোচ্চ জরিপ/মতামতকে অগ্রাধিকার দিয়ে সিদ্ধান্তটি বাস্তবায়ন করা উচিৎ। তাহলেই এদেশে সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা সম্ভব হবে।

বিরোধী দলের ইস্যু নিয়ে বলছি না, গ্রামের খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের মুখ থেকে শুনে বলছি (যারা কোন দল করে না) তারা ভোটের সময় নির্দলীয় তত্তাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা চায়। তাই সরকারের প্রতি ও প্রত্যেক দলীয় শীর্ষস্থানীয় নেতা-নেত্রীদের প্রতি অনুরোধ এবং দাবী, মুখে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার বুলি না বুলে জনগণের জন্য উন্মুক্ত একটি ওয়েবসাইট খুলুন এবং এ দেশের ষোল কোটি মানুষের মতামত নিয়ে সর্বোচ্চ মতামতকে অগ্রাধিকার দিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করুন। তবেই সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে।