ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

 

 

Surprising-Healing-Power-of-Papaya1

 

 

১. পেপে

পেপের পুষ্টিগুন জানেনা এমন মানুষ খুজে পাওয়া খুব কঠিন।  এই ফলটিতে কোন কোলস্টোরল নেই এবং ক্যালরি খুবই অল্প (প্রতি ১০০ গ্রামে ৩৯ ক্যালরি)।  যদি আপনি ওজন কমাতে চান তাহলে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় এই ফলটিকে রাখুন।  ত্বক ভালো রাখার জন্য এই ফলটি খেতে পারেন প্রতিদিন, এতে ফ্রুক্টজের (চিনি) পরিমান সামান্য এবং হজম হয় খুব সহজে।  এর এন্টিওক্সিডেন্ট, ভিটামিন ই, বেটা ক্যারটিন ত্বকের বিভিন্ন রোগ থেকে রক্ষা করে।  সূর্যের তাপ আপনার ত্বকের যে ক্ষতি করে তা থেকেও রক্ষা করবে এর মধ্যে থাকা ভিটামিন সি।

 

 

Carrots1

 

২. গাজর

গাজর শুধু আপনার ত্বকের জন্য নয় আপনার চোখের জন্যেও খুব উপকারি।  ব্রন থেকে রক্ষা পেতে এটি খুব সহায়তা করে এবং এতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন এ আছে যা আপনার ত্বকের উপরের স্তরে অতিরিক্ত স্কিন সেল সৃষ্টি হওয়াকে কমিয়ে দেয় সাথে সাথে আপনার ত্বকের খসখসে ভাব দূর করে এবং বিভিন্ন চর্ম রোগ থেকে আপনাকে অনেক দূরে রাখে পাশাপাশি ত্বকের ক্যান্সার হতে এটি বাধা সৃষ্টি করে।

 

 

English_Spinach__67562

 

৩. পালং শাক

পালং শাকে রয়েছে ভিটামিন এ, ভিটামিন ই, ম্যাগনেসিয়াম ও আয়রন।  এতা আরো আছে এন্টিওক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, ফাইবার, এবং প্ল্যান্ট প্রোটিন যা বিভিন্ন চর্ম রোগের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে।  এটি ত্বককে ভিতর থেকে পরিস্কার করে।  প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখুন পরিবর্তন নিজের চোখেই দেখতে পাবেন।

 

1200473_f520

 

৪. সামুদ্রিক মাছ

সামুদ্রিক মাছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ডি আছে যা আপনার হৃদপিন্ড, হাড় ও মস্তিষ্ক কে সুস্থ রাখবে।  সামুদ্রিক মাছ আপনাকে কোলন ক্যান্সার থেকে রক্ষা করবে, হৃদরোগ ও হাড়ের রোগ থেকেও আপনি থাকবেন অনেক দূরে।  সামুদ্রিক মাছে আছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড যা আপনার ত্বকের কুচকানো ও বয়সের ছাপ পড়া থেকে বিরত রাখবে।  আপনার ত্বককে সতেজ রাখতেও সহযোগিতা করবে ওমেগা থ্রি।

 

dark_chocolate

 

৫. ডার্ক চকলেট

আমরা ছোট বড় সবাই চকলেট পছন্দ করি।  ডার্ক চকলেটের এন্টিওক্সিডেন্ট, ফ্যাটি এসিড, ফ্ল্যাবানল ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে পাশাপাশি ত্বকের খসখসে ভাব দূর করে, সূর্যের তাপ থেকে সৃষ্ট ক্ষতি থেকেও ত্বককে রক্ষা করে।  চকলেটে থাকা কোকো রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে যা ত্বককে সতেজ দেখাতে সাহায্য করে।  সর্বনিম্ন ৮০% কোকো আছে এমন ডার্ক চকলেট প্রতিদিন ১ আউন্স পরিমান খেলে ভালো ফলাফল পাবেন।  চিনি ও দুধকে পরিহার করতে চাইলে কোকো পাউডার কিংবা কোকো বিন ব্যাবহার করতে পারেন।

 

ভালো থাকবেন সবাই।