ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

ভাবুন তো একবার । আপনি আন্দোলন করছেন আপনার মৌলিক চাহিদা গুলোর জন্য কিন্তু আপনার কথা কেউ শুনছে না । আপনার পরিবারের সদস্য কেও অসুস্থ কিন্তু আপনি কোন চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না , আপনার কোন অধিকার নেই । আপনার কোন জাতীয়তা থেকেও নেই । বাংলাদেশ ও ভারতের অভ্যন্তরে থাকা দুই দেশের ছিটমহলগুলোতে খাদ্য, বস্ত্র, আবাসন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নাগরিকত্ব, পূর্ণাঙ্গ আইনশৃঙ্খলা রক্ষার ব্যবস্থা করাসহ ছিটমহলবাসীর জন্য বাজেট ঘোষণা, হজে যাওয়াসহ ধর্মীয় কাজ সম্পাদনে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ এইগুলো কি খুব বড় কিছু চাওয়া ???

কিন্তু কেও শুনছে না । কেও না । তারা নিরবে আন্দোলন করছে বিগত কয়েক দশক ধরে । কিন্তু তাদের ভাগ্যের কোন পরিবর্তন হচ্ছে না ।

১৯৭৪ সালের ইন্দিরা-মুজিব চুক্তির আলোকে ছিটমহল বিনিময়ের দাবিতে দীর্ঘ দেড় বছর ধরে আন্দোলন চলছে। ভারত কিংবা বাংলাদেশ কোন দেশী ছিটমহল বাসীদের কেউ স্বার্থ দেখেনি । কি যে মানবেতর জীবন তাদের তা খুব কাছ থেকে না দেখলে আপনি বুঝবেন না । এদের এই দাবি টি খুব প্রাসঙ্গিক এবং আমাদের উচিত তাদের সহমর্মিতা নয় বরং তাদের পাশে দাঁড়ানো তাদের দাবি আদায়ে ।

এই ক্ষেত্রে মজার ব্যাপার হলো ভারত কেন্দ্রিয় সরকার ইন্দিরা-মুজিব চুক্তির আলোকে ছিটমহল বিনিময় বাস্তবায়নসহ তিন দফা দাবিতে আন্তরিক হলেও পশ্চিম বঙ্গ সরকার আগ্রহ দেখাচ্ছে না । দাদারা বড়ই নিষ্ঠুর । তাই রাজনীতির ঊর্ধ্বে এসে শুধু মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে সর্বস্তরের নাগরিকদের এ আন্দোলনকে সমর্থন ও আন্দোলনে শামিল হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি আপনাদের ।

গত ১৮/০৩/২০১২ বিকেল চারটা থেকে পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার জেম জুটমিল এলাকায় অবস্থিত পঞ্চগড়-ঢাকা মহাসড়কের নিকটবর্তী ভারতীয় পুটিমারী ছিটমহলে এ কর্মসূচি চলছে। এরি মধ্যে ৪জন অসুস্থ হয়ে গেছে । বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির বাংলাদেশ শাখার উদ্যোগে দেশের ১১১টি ছিটমহলের নেতারা এই অনশনে যোগ দেন। বিভিন্ন মিডিয়ার রিপোর্টার কে তাঁরা বলেন,
‘দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের অনশন কর্মসূচি চলবে। “হয় নাগরিকত্ব, নয় মৃত্যু”—এই স্লোগান নিয়ে আমাদের এই অনশন কর্মসূচি শুরু হয়েছে।’

দেশের অন্যান্য এলাকায় অবস্থিত ভারতীয় ছিটমহলের নেতারা পঞ্চগড়ে যোগ দিয়িয়েছেন । দাবি সম্পর্কে শালবাড়ী ছিটমহলের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বলেন, ১৯৭৪ সালের ইন্দিরা-মুজিব চুক্তির আলোকে অবিলম্বে ছিটমহল বিনিময় বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। অন্যান্য দাবি হলো: বাংলাদেশ ও ভারতের অভ্যন্তরে থাকা দুই দেশের ছিটমহলগুলোতে খাদ্য, বস্ত্র, আবাসন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নাগরিকত্ব, পূর্ণাঙ্গ আইনশৃঙ্খলা রক্ষার ব্যবস্থা করাসহ ছিটমহলবাসীর জন্য বাজেট ঘোষণা, হজে যাওয়াসহ ধর্মীয় কাজ সম্পাদনে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ।

একই কথা বলেছেন গাড়াতি ছিটমহলের চেয়ারম্যান মফিজার রহমান ও কাজলদিঘি ছিটমহলের চেয়ারম্যান জয় প্রকাশ। ছিটমহলের নেতারা বলেন, ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার রাজি থাকলেও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের আপত্তির মুখে আটকে আছে ছিটমহল বিনিময়ের কার্যক্রম। তিনি জানান, ‘দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের অনশন চলবে।’

বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির পঞ্চগড় জেলার নেতারা বলেন, ছিটমহল বিনিময়ের দাবিতে দীর্ঘ দেড় বছর ধরে আন্দোলন চলছে। তাঁরা রাজনীতির ঊর্ধ্বে এসে শুধু মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে সর্বস্তরের নাগরিকদের এই আন্দোলনকে সমর্থন ও আন্দোলনে সামিল হওয়ার আহ্বান জানান।

একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আপনাদের সবার কাছে অনুরোধ এই বিষয়ে লিখুন । দুই সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি আরও মানবিক অ সহানুভুতিশীল হওয়া জরুরী । ১৯৭৪ সালের ইন্দিরা-মুজিব চুক্তিটি পড়ুন ।

Land_boundary_agreement_1974(ইন্দিরা – মুজিব চুক্তি ১৯৭৪)

Article 1

The land boundary between Bangladesh and India in the areas mentioned below shall be demarcated in the following manner :
1.
Mizoram-Bangladesh Sector. – Demarcation should be completed on the basis of the latest pre-partition notifications and records.
2.
Tripura-Sylhet Sector. – Demarcation which is already in progress in this area on the agreed basis, should be completed as early as possible.
3.
Bhagalpur Railway Line. – The boundary should be demarcated at a distance of 73 feet parallel to the toe of the railway embankment towards the east.
4.
Sibpur-Gaurangala Sector. – The boundary should be demarcated in continuation of the process started in 1951-52 on the basis of the District Settlement Maps of 1915-1918.

5. Muhuri River (Belonia) Sector. – The boundary in this area should be demarcated along the mid-stream of the course of Muhuri River at the time of demarcation. This boundary will be a fixed boundary. The two Governments should raise embankments on their respective sides with a view to stabilising the river in its present course.

6. Remaining portion of the Tripura-Noakhali / Comilla Sector. – The demarcation in this sector should be completed on the basis of Chakla-Roshanabad Estate Maps of 1892-1894 and the District Settlement Maps of 1915-1918 for areas not covered by the Chakla-Roshanabad Maps.

7. Fenny River. – The boundary should be demarcated along the mid-stream of the course at the time of demarcation of that branch of the Fenny River indicated as the Fenny River on Survey of India Map sheet No. 79 M , 1st
15
Edition 1935, till it joins the stream shown as Asalong C on the said map. From that point on, downstream, the boundary should be demarcated along the mid-stream of the course of the Fenny River at the time of demarcation of the boundary. The boundary in this sector will be a fixed boundary.

8. Rest of Tripura-Chittagong Hill Tracts Sector. – The boundary will follow the mid-stream of that branch of the Fenny River, referred to in para 7 above, up to Grid reference 009779 (map sheet as in para 7 above) from where the boundary will follow the mid-stream of the eastern-most tributary. From the source of this tributary, the boundary will run along the shortest distance to the mid-stream of the stream marked Bayan Asalong, on the map referred to above, and thence will run generally northwards along the mid-stream of this river till it reaches its source on the ridge (indicated by grid reference 046810 on the map referred to above). From there it will run along the crest of this ridge up to Boghoban Trig Station. From Boghoban Trig Station up to the tri-junction of the Bangladesh-Assam-Tripura boundary (Khan Talang Trig Station), the boundary will run along the watershed of the river systems of the two countries. In case of any differences between the map and the ground, the ground shall prevail. The boundary will be a fixed boundary in this sector.

9. Beanibazar-Karimganj Sector. – The undemarcated portion of the boundary west of Umapati Village should be demarcated in accordance with the agreed basis of demarcation, leaving Umapati Village in India.

10. Hakar Khal. – The boundary should be demarcated in accordance with the Nehru-Noon Agreement of September, 1958, treating Hakar Khal as a geographical feature distinct from the Ichhamati River. The boundary will be a fixed boundary.

11. Baikari Khal. – In the Baikari Khal, the boundary should be demarcated on the agreed basis and principles, namely, that the ground shall prevail, i.e. as per the agreement reached between the Directors of Land Records and Surveys of West Bengal and erstwhile East Pakistan in 1949. The boundary will be a fixed boundary.

12. Enclaves (ছিটমহল বিনিময়ের কার্যক্রম). – The Indian enclaves in Bangladesh and the Bangladesh enclaves in India should be exchanged expenditiously, excepting the enclaves mentioned in paragraph 14 without claim to compensation for the additional area going to Bangladesh.

13. Hilli. – The area will be demarcated in accordance with Redcliffe Award and the line drawn by him on the map.

14. Berubari. – India will retain the southern half of South Berubari Union No. 12 and the adjacent enclaves, measuring an area of 2.64 square miles approximately, and in exchange Bangladesh will retain the Dahagram and Angarpota enclaves. India will lease in perpetuity to Bangladesh an area of 178 metres X 85 metres near ‘Tin Bigha’ to connect Dahagram with Panbari Mouza (P.S. Patgram) of Bangladesh.
15. Lathitilla-Dumabari. – From point Y (the last demarcated boundary pillar position), the boundary shall run southwards along the Patheria Hills RF boundary up to the point where it meets the western boundary of Dumabari Mouza. Thence, along the same Mouza boundary up to the tri-junction of Mouzas Dumabari, Lathitilla and Bara Putnigaon through the junction of the two Mouzas Dumabari and Lathitilla. From this point it shall run along the shortest distance to meet the mid-stream of Putni Chara. Thence it shall run generally southwards along the mid-stream of the course of Putni Chara at the time of demarcation, till it meets the boundary between Sylhet (Bangladesh) and Tripura (India).

আর্টিকেল ৩ এ বলা হয়েছে
Article 3
The Governments of Bangladesh and India agree that when areas are transferred, the people in these areas shall be given the right of staying on where they are, as national of the State to which the areas are transferred. Pending demarcation of the boundary and exchange of territory by mutual agreement, there should be no disturbance of the status quo and peaceful conditions shall be maintained in the border regions. Necessary instructions in this regard shall be issued to the local authorities on the border by the two countries.

মানুষ মানুষের জন্য । আমাদের তাদের পাশে দাঁড়ানো উচিত । আপনার একটু সহানুভূতি ওদের মানুষের মত বাঁচতে শিখাবে ।