ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

১। সেনা বাহিনী না নামিয়েই শান্তি পূর্ণ নির্বাচন উপহার দিয়ে আওয়ামীলীগ একটি ভাল নজির তৈরি করল। গণতান্ত্রিক নির্বাচনে সেনা বাহিনীর উপস্থিতি না থাকাটাই ভাল। তবে এই সিদ্ধান্ত আগেই জানানোর প্রয়োজন ছিল।

২। এখনও সরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয় নি। তবে বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী আইভী এগিয়েই। এখান থেকে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির শিক্ষা গ্রহণ করার মত একটি বিষয় হল আগের মত শুধু টাকা ঢেলে বা জোর খাটিয়ে নির্বাচনে জেতা যায় না। মানুষ এখন আগের থেকে অনেক সচেতন।

৩। ইভিএমের প্রতি জনগণের ইচ্ছা-অনিচ্ছার একটা প্রতিফলন দেখার প্রয়োজন ছিল। চট্রগ্রাম নির্বাচনে এটা দেখা গেলেও এন গঞ্জ নির্বাচনে স্পষ্ট হল যে আগামী সরকার নির্বাচনে ইভিএম কোনও সমস্যা তৈরি করবে না।

৪। প্রথম আলো বা গণমাধ্যমের প্রার্থী প্রচারণার ভূমিকা নিয়ে নতুন করে ভাবার সময় এসেছে। আজ হয়তবা তারা ভাল প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছে, জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হচ্ছে, ভবিষ্যতে এরা খারাপ প্রার্থীর পক্ষে এই ভাললাগা বা ভাল কাজের জায়গাটাকে ব্যবহার করবে না এর নিশ্চয়তা দেওয়া যায় না।