ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

 

ড্রয়ারে রাখা ছেলের পরীক্ষার কাগজ পত্র হাতড়ে প্রবেশ পত্রে থাকা ছেলের ছবি দেখছে আর বুক চাপড়ে হাউ মাউ করে কাঁদছে সাগরের পিতা আব্দুর রাজ্জাক। ইফতারে একটু আগে ইফতার বিহীন বসে থাকা আব্দুর রাজ্জাক দু’হাত উপরে তুলে আল্লার কাছে তার আদরের একমাত্র সন্তান সাগরের সুস্থতার জন্য ফরিয়াদ করছে। আব্দুর রাজ্জাকের বুকফাটা আর্তনাদে আশপাশের বাড়ির লোকজন জড়ো হয়ে গেল। সবার চোখে পানি। শান্তনা দেওয়ার ভাষা হারিয়ে ফেলেছে সবাই। এলাকার শান্তশিষ্ট সবার প্রিয় সাগর এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ঢাকার একটি হাসপাতালে।

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত বুধবার সন্ধ্যায় বলিদা পাড়া গ্রামে নিজ বাড়ির পাশের একটি খামারে একই গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে রিপন(১৮), সহোদর রিংকু(২৩),তাদের চাচা নজরুল(৩৫) ও মকছেদের ছেলে ফাটু সাগরকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। মারাত্মক আহত সাগরকে প্রথমে কালীগঞ্জ থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় বুধবার রাতেই যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার আরো অবনতি হওয়ায় তাকে ওখান থেকে ঢাকার কেয়ার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে ওই হাসপাতালে সংঙ্গাহীন অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে সাগর।

এলাকাবাসী ও সাগরের পরিবার সূত্রে জানা যায় ঘটনার দিন বুধবার ইফতারের আগে তাস খেলছিল কাজল ও রিপন সহ কয়েকজন। সাগরের মামাতো ভাইয়ের ছেলে টিটু (১২) তার চাচা কাজলকে ডাকতে গেলে রিপন টিটুকে মারধর করে। পরে সন্ধ্যায় বলিদাপাড়া নজরুলের দোকানের সামনে সাগর রিপনের কাছে টিটুকে মারার কারণ জিজ্ঞাসা করার এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কি হয়। এসময় টিনের আঘাতে রিপনের পিঠ কেটে গেলে সাগর ভয়ে পালিয়ে বাড়ি চলে আসে। এ সংবাদ পেয়ে রিপনের বড়ভাই রিংকু তার দলবল নিয়ে সাগরকে তার বাড়ি থেকে ধরে এনে পাশের বাড়ির খামারে লাঠিসোটা দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকে। ছেলেকে বাঁচাতে সাগরের পিতা আব্দুর রাজ্জাক রিংকু, রিপন সহ সন্ত্রাসীদের হাত পা চেপে ধরে। তারপরও তারা সাগরকে প্রচন্ড প্রহার করতে থাকে। এক পর্যায়ে সাগর জ্ঞান হারালে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশীরা সাগরকে হাসপাতালে ভর্তি করে। সাগরের পিতা জানান, সন্ত্রাসীরা সাগরকে মেরেই ক্ষান্ত হয়নি। ঘটনার দিন রাতে তার বাড়ি থেকে কয়েক বস্তা চাউলসহ ছেলের চাকরীর জন্য গচ্ছিত ৫০ হাজার টাকাও নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান সন্ত্রাসী রিংকুর পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় একটি মহল তাকে মামলা না করতে চাপ প্রয়োগ করছে।

মিজানুর রহমান,কালীগঞ্জ, ঝিনাইদহ॥
৫.৮.১২