ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

১০ গুন বেশী বিদ্যুৎ খরচ করে বড়লোকদের চামড়া ঠান্ডা করা জরুরি, না সামান্য বিদ্যুতে চার্জ করে রাস্তার গতি বৃদ্ধি করে গরিব রিক্সা চালকের অমানুষিক পরিশ্রম কমিয়ে রুটি-রুজির ব্যাবস্থা করা বেশী দরকারি?
পৃথিবীর সব উন্নত দেশেই ধোঁয়া বিহীন পরিবেশ বান্ধব ব্যাটারি চালিত যানবাহন ব্যাবহারে উৎসাহিত করা হয়, শুল্ক কমানো হয় বা মওকুফ করা হয়।
আমাদের দেশে হয় উল্টোটা!

কিছু আবাল পত্রিকা সুর উঠিয়েছে, তারপর আমাদের জনপ্রীয় যোগাযোগ মন্ত্রীকেও বিভ্রান্ত করা হয়েছে। টকশোতেও কিছু বেকুব বলেই যাচ্ছে ব্যাটারি চার্জে নাকি সব বিদ্যুৎ খেয়ে ফেলছে! আমদানি করা তেল, এক চতুর্থাংশ কম দামে মুল্যাবান গ্যাস প্রাইভেট কার ওয়ালাদের দিয়ে বাসাবাড়ী চুলা বন্ধ করলে দোষ হয় না!

কত বিদ্যুত খাচ্ছে?
একটি 12v ব্যাটারি চার্জার দিয়ে মাত্র 1.5 Amp লোডে বিদ্যুৎ খরচ করে ব্যাটারি চার্জ করা হয়। যা বাসাবাড়ীর আইপিএসের চার্জিং খরচের প্রায় সমান। (এই বিদ্যুৎ ৩টি ফ্যান চালানোর খরচ মাত্র)। অতচ বাসা-বাড়ির একটি এসি 7 থেকে 15 Amps পর্যন্ত লোডে বিদ্যুৎ খরচ করে, ৩,০০০ ওয়াট! একটি মাইক্রোওয়েভ ওভেন 5 Amps পর্যন্ত লোডে বিদ্যুৎ খরচ করে। রিক্সার ব্যাটারি গুলো সাধারনত ট্রিপ শেষ করে গভীর রাতে নন পিক আওয়ারে চার্জ করা হয়। মাথা মোটা সরকার কি ব্যাটারি চার্জ করা নিষিদ্ধ করবে? আইপিএসএ ১২ ভোল্ট ২ টি বৃহদকার (একএকটি ১৮০ ah ক্যাপাসিটির) ২ টি ব্যাটারি যা রিক্সার ব্যাতারির দ্বিগুন, চার্জে সারাক্ষনই লেগে থাকে। প্রচলিত প্রায় ৯৫% ভাগ আইপিএস চার্জারে ওভারচার্জ প্রটেক্টার থাকেনা, অতিরিক্ত চার্জ বুদবুদ হয়ে বাষ্পে পরিনত হয়ে বিপুল বিদ্যুত অপচয় হয়ে যায়। যা রিক্সা ব্যাটারির চেয়ে বেশী চার্জিং খরচ।

গরিব রিক্সাচালকদের অত্যাচার না করে বর্তমান অবস্থাকেই আরো উন্নতমানের লাগসই প্রযুক্তি, যেমন রিক্সার হুডে সোলার চার্জার, উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ব্যাটারি, বিদ্যুত সাশ্রয়ি প্রযুক্তি সম্পন্ন ড্রাইভ মটর ও ৩ চাকায় ব্রেক লাগাতে উৎসাহিত করা উচিত। অমানুষিক পরিশ্রম কিছুটা লাঘব করতে গরিব কিছু রিক্সাচালক নিজস্য প্রযুক্তিতে রিক্সা মোটোরাইজড করলে গাড়ীওয়ালাদের গা জালা শুরু হয় কেন বুঝি না। এই রিক্সাগুলোকে বিতাড়িত করা মোটেই উচিত হবেনা, এরা ভাড়াও খুব কম নেয়। CNG অটোরিক্সা যেখানে ১৫০ টাকা নেয়, প্রায় কাছাকাছি গতিতে চলা ব্যাটারি-মটোর রিক্সা নেয় মাত্র ৩০-৩৫ টাকা। স্বল্প দুরত্বে সিঞ্জিওয়ালারা কখনোই যেতে চায় না।