ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

5953-good-times-become-good-memories-and-bad-times-become-good

তুমি যদি বল ‘ভালো আছি’ তবে কেও জিগ্যেস করবেনা কেন ভালো আছো, কিন্তু যদি কারো ‘কেমন আছো’র উত্তরে বলো ‘ভালো নেই’, তবে তোমাকে অনেকগুলো প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে। ভালো থাকাটা কঠিন, কিন্তু ভালো থাকতে পারাটা খুবই সহজ!

ধাঁদায় পরে গেলে? ঠিক আছে, বুঝিয়ে দিচ্ছি! কোন দুর্ঘটনায় একটা পা’ হারানো ব্যাক্তিটি ক্র্যাচে ভর দিয়েই নিজের বউ-ছেলেমেয়ে নিয়ে ঘুরতে যাচ্ছে। মিথ্যে মামলায় ফেঁসে গিয়ে জেল খাটতে থাকা নির্দোষ কয়েদীটিও ভাগ্যকে মেনে নিয়ে কিছু চোর-ডাকাতের সাথে বন্ধুত্ব করে নিয়েছে।

ক্যান্সারের ভাইরাস শরীরে বয়ে বেড়ানো মানুষটা যেনে গেছে এই পৃথিবীতে সে অল্প ক’দিনের অতিথি, সে’ও পছন্দের কোন খাবার সামনে এলে আগ্রহ নিয়েই খাচ্ছে, কোন ওষুধে তাঁর এই মরনব্যাধি সারবেনা যেনেও প্রতিদিন নিয়ম করে ওষুধ খাচ্ছে, পৃথিবীর সব মানুষ মিলে ভালোবাসলেও তাঁকে ধরে রাখতে পারবেনা, এ কথা যেনেও আপনজনদের আগের মতই ভালোবাসছে।

দুর্বৃত্তের ছোড়া এসিডে ঝলসে যাওয়া কদাকার মুখ নিয়ে মেয়েটা দিব্বি অন্যের মুখশ্রী বাড়ানোর কাজ’কে নিজের পেশা হিসেবে বেছে নেয়।

ধনাঢ্য দম্পতির একমাত্র সন্তান, স্ত্রী-পুত্র সহ সড়ক দুর্ঘটনায় চলে যাবার পর তাঁরা নিজেদের’কে একে অপরের অবলম্বন বানিয়ে নিয়েছে।

দরিদ্র কৃষক, দেনার দায়ে নিজের এক চিলতে ফসলি জমি বিক্রি করে দিয়ে অন্যের জমিতে নাঙ্গল দিতে দিতে ভাবে ‘আসছে শীতে মেয়ে’কে একটা কম্বল কিনে দিতে হবে’।

চাকুরি করে নিজের পরিবারের ভাগ্য ফেরানোর আশায় রাজধানীতে আসা গ্রামের সহজসরল মেয়েটি নিজেই ভাগ্যের ফেরে পরে প্রতিদিন নোংরা বিছানায় বাবার বয়েসি কোন মানুষের মনোরঞ্জন করছে। গার্মেন্টসের মেশিন চালিয়ে মাস শেষে নিজের উপার্জনের টাকা হাতে নিয়ে একজন যে পরিমান আনন্দিত হয়, দিন শেষে নিজের আয়ের টাকা গুনতে গিয়ে এই মেয়েটি তেমনি আনন্দ পায়, এখন আর কোন পুরুষের লোলুপ দৃষ্টি দেখলে তাঁর ঘেন্না লাগেনা।

ভালোবাসার মানুষটির সাথে সুখের সংসার বাঁধবার আশায় সেচ্ছায় নির্বাসনে যাওয়া সম্ভ্রান্ত পরিবারের ছেলেটি মাঝপথে বিকল হয়ে যাওয়া ট্যাক্সিক্যাব ধাক্কাতে ধাক্কাতে চিন্তা করে ‘বউ চিন্তা করছে’।

এই মানুষগুলি ভালো নেই, কেও ভালো নেই! তাঁরা জানে, এই সমস্যাগুলো থেকে তাঁদের মুক্তির সমূহ কিংবা আদৌ কোন সম্ভাবনা নেই, কিন্তু তাঁরা ভালো থাকতে শিখে গেছে!!

noproblem

তোমার সমস্যা কতটুকু?

মন খারাপ? কারন যা’ই হোক, ঘুরতে বের হও। বাজেট কিংবা সময় নেই? “দেখা হয়নাই চক্ষু মেলিয়া, ঘর হইতে দুইপা ফেলিয়া, একটি ঘাসের শিষের উপর একটি শিশির বিন্দু” এই লাইনটির মানে বের করো। তাও সম্ভব হচ্ছেনা? কাওকে একটা সারপ্রাইজ দাও; যেমন, এমন কোন বন্ধুকে ফোন করো, যার সাথে সচরাচর কথা হয়না।

যাকে ভালোবাসতে সেই মানুষটি সম্পর্ক ছিন্ন করে চলে গেছে? ভালোবাসার এন্টেনা’টা একটু এদিক-সেদিক ঘোরাও, দেখবে কখনো টিউন করনি এমন একটা চ্যানেলে শুধু তোমার জন্যই রোম্যান্টিক সং প্লে হচ্ছে!

আর্থিক অভাবে আছো? এর নির্দিষ্ট কোন পরিমান নেই, সমাধানও নেই, পৃথিবীর প্রত্যেকটা মানুষ অভাবে আছে! তবে একটি ইংরেজি বচন ফলো করতে পারো; “Cut your coat according to your cloth” (আয় বুঝে ব্যায় করো)।

এই সমস্যাগুলোই একমাত্র সমস্যা নয়, এর বাইরেও অনেক সমস্যা রয়ে গেছে; পারিবারিক সমস্যা, সামাজিক সমস্যা সর্বোপরি রাষ্ট্রীয় সমস্যা। কিন্তু ব্যাক্তিগত সমস্যাগুলোর মধ্যে এগুলোর’ই আধিক্য বেশি, তাই উল্ল্যেখ করা। সমস্যা যাই থাকুক, বিষণ্ণতায় (Depression) ভোগা এবং আত্মবিশ্বাস (Self-confidence) হারিয়ে ফেলাটাই বড় সমস্যা।
ভালো থাকার চেষ্টা করো। মরার আগে মরোনা! নিজের জন্য না হলেও, যে মানুষগুলোর তোমাকে প্রয়োজন আছে এবং যারা তোমার “হাসিমুখ” দেখতে চায়, তাঁদের জন্য হলেও বাঁচো…।