ক্যাটেগরিঃ প্রবাস কথন

পাসপোর্ট আর সাটিফিকেটের জন্মতারিখ এক না,অনেক দিন থেকে আরব দেশের প্রবাসী বাংলাদেশীদের মধ্যে এই সমস্যা দেখা যাচ্ছে। যার কারনে তারা অনেক ভালো চাকরী থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সম্পতি কুয়েত প্রবাসী কবির হোসেন নামে এক লোকের সাথে কথা বলে জানলাম,তিনি হিসাবরক্ষণে অনার্স এর ছাত্র ছিলেন তার এসএসসি,এইচএসসি সার্টিফিকেট দেখে মনে হয় ভালো ছাত্র ছিলেন। তিনি একটি মানি এক্সচেঞ্জে চাকরীর জন্য আবেদন করে কিন্তু শুরুতেই তা বাতিল হয়ে যায়।

আপনার আবেদন গ্রহণ করা সম্ভব নয় কারন আপনার পাসপোর্ট এবং সার্টিফিকেটের জন্মতারিখ এক নয় এটি নকল সার্টিফিকেট আর মার্ক করে লিখে দেয় – পরবর্তীতে এই সার্টিফিকেট নিয়া অন্য কোথাও আবেদন করলে হয়তো প্রশাসনিক জামেলাই পড়তে পারেন।

খালাতো ভাইয়ের হাত দরে কবিরের প্রবাসে আসা..

কবির – এই খানে আসার জন্য ভাইয়া যখন আমার পাসপোর্ট বানাতে বলে তখন আমি মাত্র এইচএসসি পাশ করি।উনিই আমাকে বলল এইখানে আসতে হলে পাসপোর্ট এ বয়স ২২ এর উপরে হতে হবে আমি যেন পাসপোর্টের জন্মতারিখ অ্যাডজাস্ট করি ২২ বছর হিসাবে এরপর আমি সেই অনুসারে আমি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করি।

আমাদের উচিত এই সব কাজে একটু সতর্ক হওয়া।

২৪-০৭-২০১২

অনেক দিন পর দেখা হল আজ এই গল্পের প্রবাসী কবির হোসেন সাথে…
কিছু দিন পূর্বে তিনি একটি ট্যাক্সিতে কাজ নিয়াছে বাংলাদেশ থেকে আনা একটি অষ্টম শ্রেণীর ভুয়া সার্টিফিকেট দিয়ে।
এটা আমাদের জন্য খুব দুঃখের ব্যাপার।

আসলে প্রবাসে চলে আসার পর পাসপোর্ট আর সাটিফিকেটের জন্মতারিখের সমস্যা সমাধানের আর কোন পথ থাকে না।

দয়া করে আমারা যারা অথবা আমাদের কোন আত্মীয় আরবদেশগুলোতে আসতে আগ্রহী,তারা যেন নতুন পাসপোর্ট তৈরি করার সময় সাটিফিকেটের জন্মতারিখের সাথে যেন পাসপোর্ট জন্মতারিখ এক হয়,এই বিষয় নিয়ে যেন সতর্কতা অবলম্বন করেন।

ট্যাগঃ:

মন্তব্য ০ পঠিত