ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

সময়ের প্রয়োজনে ইন্টারনেটের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। ইন্টারনেটের সংযোগ থাকা মানেই বিশ্বের সাথে একটি আন্তযোগাযোগ স্থাপিত হয়ে যাওয়া। পৃথিবীর নানান প্রান্তে কখন কি হচ্ছে, কি কি পরিবর্তন হলো, নতুন কোন সংবাদ, নতুন কোন ঘটনা সব কিছু জানতে হলে আমাদের স্মরণাপন্ন হতে হয় ইন্টারনেটের। আমরা খুব সহজেই ‌যে কোন খবর জানতে পারি, খবর পৌছে দিতে পারি সকলের কাছে।

আমাদের দেশেও বেড়ে যাচ্ছে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা। এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করাও অনেক সহজ হয়ে যাচ্ছে, কমেছে এর ব্যবহারের খরচ। বিশেষ করে মোবাইলে ইন্টারনেট চালু হওয়ার পর থেকে যে কোন স্থান থেকে যে কোন সময়ে আমরা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারি। এরপর আছে ল্যাপটপ, দিন দিন ল্যাপটপের দাম কমে যাচ্ছে কিন্তু বাড়ছে এর গতি। সব কিছু মিলিয়ে ইন্টারনেট আমাদের দুয়ার প্রান্তে এসে দাঁড়াচ্ছে।

কেউ ইন্টারনেট ব্যবহার করলে আমি তাকে প্রথম যে প্রশ্ন করি তা হলো ইন্টারনেট ব্যবহার করে সে কি কি কাজ করে। মোটামুটি আশি শতাংশ লোকের কাছ থেকে আমি একটিই উত্তর পাই, তা হলো ইন্টারনেট ব্যবহার করে তারা ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন। এরপর আছে মেইল করা। এ ছাড়া আর কোন ব্যবহার তারা করেনা।

বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগের যে কয়টি ওয়েব সাইট আছে তার মধ্যে ফেসবুক একটি জনপ্রিয় ওয়েব সাইট। এর ম্যাধ্যমে আমরা সবার সাথে সহজেই যোগাযোগ রাখতে পারি, খুঁজে পেতে পারি কোন পুরনো বন্ধুকে, জানতে পারি তাদের সর্বশেষ খবর, ভাগাভাগি করতে পারি তাদের অনুভূতিকে। কিন্তু এটাই কি সব?

ফেসবুক ছাড়াও ইন্টারনেটে আছে অনেক সাইট। যেখানে আমরা অনেক নতুন নতুন বিষয় কিংবা পুরনো বিষয় নতুন করে জানতে পারি, নিজেকে প্রকাশ করতে পারি, অন্যের সম্পর্কে জানতে পারি কিংবা সমৃদ্ধ করতে পারি জ্ঞান ভান্ডারকে।

উইকিপিডিয়ার কথাই ধরা যাক, ২০০১ সালের ১৫ জানুয়ারি জিমি ওয়েল এবং ল্যারি স্যানগার আনুষ্ঠানিক ভাবে পরিচয় করিয়ে দেয় উইকিপিডিয়ার ( http://www.wikipedia.org ) সাথে। উইকিপিডিয়া একটি সমৃদ্ধশালী জ্ঞান ভান্ডার। প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন জ্ঞান এতে যোগ হচ্ছে। পৃথিবীর প্রায় সকল ভাষাতেই এর নিবন্ধ পাওয়া যায়। বাংলা ভাষাতেও আছে উইকিপিডিয়ার সংস্করণ। চাইলে যে কেউ বাংলা উইকিপিডিয়াতে ( http://bn.wikipedia.org/wiki/ ) কোন নির্ভর যোগ্য তথ্য যোগ করতে পারবেন। এ জন্য থাকা চাই ইচ্ছা শক্তি ও ইন্টারনেট সংযোগ। জানি এ দুটোই আপনার আছে। আপনার যে কোন তথ্য প্রয়োজন পড়লে আপনি সহায়তা নিতে পারেন বাংলা উইকিপিডিয়ার। আর এতে লিখতে চাইলে এই সাইটে নিবন্ধন করে নিলেই হবে।

প্রেমে পড়েনি এমন কোন লোক আমাদের দেশে খুঁজে পাওয়াই মুস্কিল। আর প্রেমে পড়লে একটু আধটু কবিতা সবাই লেখে। কিন্তু দুর্ভাগ্য এই সব কবিতা গল্প পড়ার মানুষ সহজেই পাওয়া যায়না। তাছাড়া ইচ্ছে হলেই এসব গল্প কবিতা কোথাও ছাপানো যায়না। কিন্তু ইন্টারনেট থাকলে সমস্যা কি? আপনি সহজেই এই লেখা আপনি ছাপাতে পারেন ও সাথে সাথে এর সম্পর্কে মতামত পেতে পারেন। এ জন্য আছে বিভিন্ন বাংলা ব্লগ সাইট, যেমন প্রথম আলো ব্লগ, সামহোয়ার ইন ব্লগ, বিডি নিউজ ব্লগ ইত্যাদি ব্লগে আপনি নিবন্ধন করে আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন, কারো লেখা পড়তে পারেন, মন্তব্যও করতে পারেন। এই লিংকে গিয়ে আপনি এই ওয়েব সাইটগুলোকে খুঁজে পাবেন http://blog.bdnews24.com/ , http://prothom-aloblog.com/ , http://www.somewhereinblog.net/

আপনার পরিচিত কেউ যদি সংসারের লোক বাড়াতে চায় বা বাবা মা হতে চায় তবে তার জন্য আছে একটি চমৎকার ওয়েব সাইট- বেবি সেন্টার.সিএ http://www.babycenter.ca/ । এই সাইটে আপনি ইমেইল আইডি দিয়ে লগ ইন করলে তারা আপনাকে প্রতিনিয়ত মেইল করে পাঠাবে আপনার নবাগত সন্তান কখন কি আচরণ করবে, কখন কেমন যত্ন করতে হবে ইত্যাদি।
এরপরে আসে সন্তানের লেখাপড়া। আপনার নিজের যদি বাচ্চা কাচ্চা থাকে কিংবা ছোট ছোট ভাইবোন থাকে তবে তাদের পড়া শেখানোর জন্য আছে খান একাডেমির ওয়েব সাইট। এই সাইটে বিভিন্ন বিষয়ের জন্য দেওয়া ভিডিও টিউটোরিয়াল আপনাকে কোন বিষয় খুব সহজেই শেখাতে পারবে। http://www.khanacademy.org/ এই ওয়েব সাইটে গিয়ে আপনি দেখে নিতে পারেন বিভিন্ন বিষয়ের জন্য ভিডিও টিউটোরিয়াল।

এছাড়াও আছে বিভিন্ন বিষয়ের জন্য আর্কষণীয় উপস্থাপনা বা স্লাইড শো- http://www.slideshare.net এই সাইটে আপনি পাবেন বিভিন্ন বিষয়ের জন্য তৈরি কৃত স্লাইড শো। এছাড়া আপনি চাইলে আপনার তৈরি কৃত স্লাইড আপলোডও করতে পারেন। এছাড়া আছে ই-হাউ http://www.ehow.com নামে একটি ওয়েব সাইট। যেখানে আপনি কোন কাজ কিভাবে করতে হয় তার ধাপে ধাপে বর্ণনা পাবেন।

ছোট ছোট শিশুদের জন্য গল্প, কবিতা ইত্যাদির জন্য আছে বিডি নিউজের একটি কিডস সাইট- http://kidz.bdnews24.com/index.php যেখানে চমৎকার করে ছোটদের জন্য প্রয়োজনীয় বিষয় উপস্থাপন করা হয়েছে। চাইলে আপনি ঘুরে আসতে পারেন এই সাইটে।

পারস্পারিক যোগাযোগের জন্য আছে টুইটার, লিংকিডিন ইত্যাদি ওয়েব সাইট। http://twitter.com/, http://www.linkedin.com/ ইত্যাদি ওয়েব সাইটে আপনি যোগাযোগ রাখতে পারবেন আপনার পেশার লোকের সাথে ও অন্যান্য লোকের সাথে।

ইংরেজি শেখা নাকি অনেক সহজ। চাইলেই পারবেন, আর তার জন্য আছে বিবিসি জানালা। আপনি ইন্টারনেটে বসেই ইংরেজি শিখতে পারবেন http://www.bbcjanala.com/ এখান থেকে। বিভিন্ন গবেষণার জন্য আপনি সাহায্য নিতে পারেন http://www.eric.ed.gov/ এই সাইটের । এখানে আছে বিভিন্ন গবেষণার সারাংশ।

এছাড়া আছে আমাদের দেশের ও বাইরের বিভিন্ন পত্রিকার অনলাইন সংস্করণ যেমন প্রথম আলোর জন্য আছে ই প্রথম আলো-http://www.eprothomalo.com/। সর্বশেষ জনপ্রিয় সংবাদের জন্য http://digg.com। কম্পিউটারে কোন সমস্যা হলে বা কোন বিষয় জানতে হলে আছে http://forum.amaderprojukti.com/। ।

তো আর দেরি কেন? আপনি এখন এমন এক দুনিয়ার খবর পেলেন যেখান থেকে আপনি চাইলে যে কোন তথ্যই পাবেন হাতের নাগালে।