ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

সম্প্রতি পুলিশ যে ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে, তা সত্যি চিন্তার বিষয়। পুলিশের মারমূখী আচরণে পুলিশকে সমাজের মানুষ বলে মনে হয় না। যাদের আত্মীয় স্বজন পুলিশে আছে, তাদেরকেও বিব্রতকর অবস্থায় দেখা যায়। সব কাজেরই একটা সীমা আছে। কিন্তু ইদানিং পুলিশের মারমূখী আচরণ সীমা লংঘন বলেই সাধারণ মানুষ মনে করে। সরকার বিরোধী আন্দোলন যারা করে, তাদেরকে যেভাবে নির্যাতন করা হয়, এবং তা প্রকাশ্যে টিভিতে তা দেখানো হয়।তা সত্যিই ভয়াবহ। ছোট বাচ্চাদেরকে সেন্সর করে দেখানো উপযোগী। সরকারের জনপ্রিয়তা বিনষ্ট করার জন্য পুলিশ বাহিণীর এরূপ কাজই যথেষ্ট। বিরোধী দলের মিছিলে ইচ্ছামত পেটালে বিরোধী দলে ভোট বারে তাই তাদের খুব একটা ক্ষতি নেই। কিন্তু শিক্ষক, সাংবাদিক, তাজউদ্দিনের নাতি, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকে যখন পেটানো হয় তখন তার কার্যকারণ খুঁজে পাওয়া যায় না। সাধারণ জনগণ সরকারের প্রতি কি পরিমাণ বিরক্ত হয়, সে খবর কি সরকারী দলের নেতারা জানেন? অনেকেরই ধারনা কিছু পুলিশ সাবোটাজ করে সরকারকে জনপ্রিয়তা কমানোর জন্য এমন আচরণ করছে।